fbpx
Connect with us

খেলা

মাশরাফিদের কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুড়ল সাকিবরা (লাইভ)

Published

on

স্পোর্টস ডেস্ক।। শুরুতেই ধাক্কা খেয়েছিল ঢাকা ডায়নামাইটস। পরে খেলা ধরেন সাকিব আল হাসান। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে রানের ফোয়ারা ছোটালেন কাইরন পোলার্ড ও আন্দ্রে রাসেল। তাদের ঝড়ে চ্যালেঞ্জিং স্কোর পেল ডায়নামাইটসরা। রংপুর রাইডার্সকে ১৮৪ রানের টার্গেট দিল তারা। চলমান বিপিএলে প্রথমবার মুখোমুখি হয় ঢাকা ও রংপুর। হাইভোল্টেজ ম্যাচে টস ভাগ্যকে পাশে পান মাশরাফি বিন মুর্তজা। সাকিবকে হারিয়ে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ফলে প্রথমে ব্যাট করতে নামে রাজধানীর দলটি।

তবে শুরুটা শুভ হয়নি ঢাকার। সূচনালগ্নেই অশুভ ভূত ঘাড়ে চেপে বসে তাদের। অযাচিত শট খেলে আসেন আর যান টপঅর্ডাররা। ইনিংসের ভূমিকাতেই সোহাগ গাজীর বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন ইনফর্ম হযরতউল্লাহ জাজাই। প্রাথমিক ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার আগে পয়েন্টে মাশরাফির বলে বোপারাকে লোপ্পা ক্যাচ দিয়ে সাজঘরের পথ ধরেন সুনিল নারাইন। এর রেশ না কাটতেই গাজীর দ্বিতীয় শিকার বনেন রনি তালুকদার। তবে এতে বোলারের যতটা না কৃতিত্ব, তার চেয়ে বেশি ফিল্ডারের। বেনি হাওয়েলের দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত হন তিনি। পরে মিজানুর রহমানকে নিয়ে উদ্ভূত চাপ কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করেন সাকিব। তবে যোগ্য সহযোদ্ধার সমর্থন দিতে পারেননি মিজানুর। বেনি হাওয়েলের এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে বিদায় নেন তিনি।

৬৪ রানের মধ্যে জাজাই, নারাইন, রনি, মিজানুরকে হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে ঢাকা। কাইরন পোলার্ডকে নিয়ে সেখান থেকে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন সাকিব আল হাসান। এক্ষেত্রে সফল হন এ জুটি। রংপুর বোলারদের ওপর স্টিম রোলার চালান পোলার্ড। রীতিমতো তুলোধোনা করেন তিনি। পতিমধ্যে ঝড়ো ফিফটি তুলে নেন ক্যারিবীয় হিটার। অবশ্য ফিফটির পর বেশিদূর এগোতে পারেননি তিনি। মাত্র ২৬ বলে ৫ চার ও ৪ ছক্কায় ৬২ রান করেন এ ব্যাটিং অলরাউন্ডার।

একে একে সবাই ফিরলেও একপ্রান্ত আগলে রাখেন সাকিব। ক্রিজে এসেই ঝড় তোলেন আন্দ্রে রাসেল। তাতে দুরন্ত গতিতে ছোটে ঢাকা। হঠাৎই থেমে যান অধিনায়ক। ফরহাদ রেজাকে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ফিনিশ হন তিনি। ফেরার আগে ৩৭ বলে ৪ চারে ৩৬ রান করেন সাকিব। খানিক পর থামে রাসেল টর্নেডো। ১৩ বলে ৩ ছক্কায় ২৩ রান করে ফেরেন তিনি। এর জের না কাটতেই শফিউলের শিকার হয়ে ড্রেসিংরুমের পথ ধরেন শুভাগত হোম ও নুরুল হাসান। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেটে ১৮৩ রান করে ঢাকা। রংপুরের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন শফিউল। ২টি করে উইকেট নেন হাওয়েল ও গাজী।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়