298770

এক ষাঁড়ের দাম ১০ কোটি টাকা!

‘মুররাহ’ বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত জাতগুলোর একটি। এটি মূলত হরিয়ানা রাজ্যের রোথক ও জিন্দ জেলার প্রাণী। তবে উত্তরপ্রদেশের পশ্চিমেও এর দেখা পাওয়া যায়। আকারে বড় ও উন্নত হওয়ার কারণে পশুপালনকারীদের কাছে মুররাহ জনপ্রিয়।সেই মুররাহ জাতের এক অতিকায় ষাঁড়ের নাম রাখা হয়েছে যুবরাজ। ২০১৪ সালে এক পশু প্রতিযোগিতায় সেরা নির্বাচিত হয়ে ‘যুবরাজ’ ও তার মালিক দুজনই আলোচনায় চলে আসে।

বিশালাকার এই ষাঁড়ের মা (গাভী) প্রায় ২৫ লিটার করে দুধ দিত। ভারতের ‘সর্ব ভারতীয় গবাদি পশুমেলার’ সেরা পশুর খেতাব পাওয়া যুবরাজের ওজন এক হাজার ৪০০ কেজি।গড়পরতা ষাঁড়ের তুলনায় যুবরাজ দেখতে ছোটখাটো পাহাড়। তাকে নিয়ে বিভিন্ন পত্রিকায় মজাদার সব খবর প্রকাশ হতে শুরু করে। স্থানীয় টেলিভিশন প্রচার করে তাকে নিয়ে বিশেষ ডকুমেন্টারি।

অতিকায় যুবরাজ প্রতিদিন প্রায় ২৫ হাজার টাকার খাবার খায়। তার রক্ষণাবেক্ষণে আরও প্রায় ১০ হাজার টাকা ব্যয় হয়। দুধ, আপেল আর মাংস যুবরাজের পছন্দের খাবার। স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে নিয়মিত ব্যায়াম করানো হয় যুবরাজকে।প্রতি সকালে প্রায় চার কিলোমিটার রাস্তা হাঁটানো হয় তাকে। ষাঁড় দুধ দেয় না, সরাসরি কৃষি কাজেও লাগানো হয় না। তবু যুবরাজের মাধ্যমে তার মালিকের বছরে আয় প্রায় ৫০ লাখ টাকা। এই টাকা আসে যুবরাজের সিমেন বা বীর্য বিক্রি করে।

দক্ষিণ ভারতে এর প্রচুর চাহিদা। ২০১৪ সালের এক হিসাব মতে, যুবরাজ প্রায় এক লাখ ৫০ হাজার বাছুরের জনক। বর্তমানে সেটি নিঃসন্দেহে আরও বেড়েছে। এই সেলিব্রেটি ষাঁড়টির দিকে ধনকুবেরদেরও নজর।ভারতের এক কৃষক তো নগদ সাত কোটি রুপিতে কিনে নেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছিলেন। কিন্তু যুবরাজের মালিক করমভির সিং তাতে রাজি হননি। যুবরাজ তার সন্তানতুল্য। উল্টো বললেন, জীবনের সবকিছুর মূল্য তো আর টাকা দিয়ে হয় না!

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *