193222

মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণে শঙ্কামুক্ত নন অাইভী

মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের কারণে শঙ্কামুক্ত নন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। আইভীর চিকিৎসক ল্যাবএইড হাসপাতালের কনসালটেন্ট কার্ডিওলজিস্টর ডা. অাতিকুজ্জামান সোহেল জানিয়েছেন, ২৪ ঘণ্টার অাগে তার (অাইভী) শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে ঠিক কিছুই বলা যাবে না। তার মাথায় অাঘাত রয়েছে। অার এই অাঘাতজনিত কারণেই শঙ্কা রয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টায় আইভীর সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংকালে ডা. অাতিকুজ্জামান সোহেল এ কথা জানান। রক্তক্ষরণের কারণে ঝুঁকিও বাড়তে পারে বলে মত দেন এই চিকিৎসক।

এর অাগে ল্যাবএইড হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তা সাইফুর রহমান লেলিন জাগো নিউজকে জানিয়েছিলেন, অাইভীকে ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিৎসক।

লেনিন জানান, বিকেল সোয়া ৫টার দিকে ল্যাবএইডে ভর্তি করা হয় মেয়র আইভীকে। কার্ডিওলজিস্ট বরেন চক্রবর্তীর দায়িত্বে সিসিইউতে (কার্ডিয়াক কেয়ার ইউনিট) ভর্তি করার পর সিটি স্ক্যানসহ প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। তার চিকিৎসার জন্য অধ্যাপক আবদুস জাহেদসহ পাঁচ সদস্যের বোর্ড গঠন করা হয়েছে।

চিকিৎসক অাতিকুজ্জামান বলেন, সিটি স্ক্যান রিপোর্টে তার মাথায় হ্যামার (জমাটবদ্ধ রক্ত) পাওয়া গেছে। আমরা ২৪ ঘণ্টা ওনাকে পর্যবেক্ষণের পর প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা নেব। এখন উনি আইসিইউতে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। অাগামীকাল অাবারও সিটিস্ক্যান করা হবে।

অাইভির চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা ডা. ব‌রেন চক্রবর্তী জা‌গো ব‌লে‌ছেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করা পর্যন্ত কিছু বলা যা‌বে না। ২৪ ঘণ্টা তা‌কে পর্য‌বেক্ষ‌ণে থাক‌তে হ‌বে। পরীক্ষা- নিরীক্ষার ফলাফল হা‌তে এ‌লেই কেবল বলা সম্ভব হ‌বে ওনার কী সমস্যা।

এদিকে অাওয়ামী লী‌গের সাংগঠ‌নিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম অাই‌ভী রহমান‌কে দে‌খে‌তে গি‌য়ে‌ছি‌লেন। এ বিষ‌য়ে এনামুল হক শামীম‌কে ফোন করা হ‌লে জা‌গো নিউজ‌কে তি‌নি ব‌লেন, অাই‌ভি রহমান‌কে ল্যাবএই‌ডে ভ‌র্তির কাজ সম্পন্ন কর‌তেই হাসপাতা‌লে গি‌য়ে‌ছিলাম। তার ভর্তি সম্পন্ন ক‌রে এ‌সে‌ছি।

এক প্র‌শ্নের জবা‌বে শামীম ব‌লেন, ডাক্তার ব‌রেন চক্রবর্তীর অধীনে অাই‌ভী রহমান‌কে ভ‌র্তি করা হ‌য়ে‌ছে। ডাক্তার তা‌কে পর্য‌বেক্ষ‌ণে রে‌খে‌ছেন। ২৪ ঘণ্টা তা‌কে পর্য‌বেক্ষ‌ণে রাখা হ‌বে ব‌লে ডাক্তার জানি‌য়ে‌ছেন।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *