184436

সংসারই ছিল না বিচ্ছেদ কীসের?

শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস বিয়ে করেন নয় বছর আগে। কিন্তু সংসার করেননি একদিনও। দুজনই থাকতেন আলাদা বাসায়। তাই চলচ্চিত্রাঙ্গনের মানুষদের মুখে এখন একটাই প্রশ্নÑ যেখানে শাকিব-অপুর সংসারই ছিল না, সেখানে আবার বিচ্ছেদ কীসের? শাকিব-অপু আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন কয়েক মাস ধরেই। গত সোমবার সে আলোচনা চলে যায় তুঙ্গে। শাকিব তার আইনজীবীর মাধ্যমে অপুকে তালাকের নোটিশ পাঠানোর পর থেকেই নতুন করে আবার শুরু হয় আলোচনা।
তালাকের নোটিশ নিয়ে যা বললেন শাকিব ও অপু

ভারতের হায়দরাবাদের রামুজি ফিল্ম সিটিতে রাশেদ রাহা পরিচালিত ‘নোলক’ ছবির শুটিং নিয়ে এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন শাকিব খান। সেখানে যাওয়ার আগে গত ২২ নভেম্বর অপু বিশ্বাসকে পাঠানো তালাকের নোটিশে স্বাক্ষর করেন তিনি। গত সোমবার রাতে হায়দরাবাদ থেকে মুঠোফোনে শাকিব খান বলেন, ‘আমি স্বাক্ষর করে দিয়ে এসেছি। এখন থেকে এ বিষয়ে যা কিছু বলার, আমার আইনজীবী বলবেন। আমি এখন শুটিং নিয়ে ব্যস্ত আছি। এ ছাড়া নতুন কয়েকটি ছবিতেও চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। প্রযোজক আর পরিচালকদের এই কাজগুলো নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করে দিতে চাই।’ ছেলে আব্রাম খান জয় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সে তো আমারই সন্তান। তার ভালোর জন্য যা যা করা দরকার, অবশ্যই আমি সেটা করব।’

এদিকে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘তালাকের নোটিশ এখনো হাতে পাইনি। দুপুরে আমি বাবুকে খাওয়াচ্ছিলাম। হঠাৎ টেলিভিশনের স্ক্রলে খবরটি আমার নজরে আসে। এরপর মুঠোফোনে পরিচিতজনের কয়েকটি খুদে বার্তাও পেয়েছি। বিষয়টি আমাকে অবাক করেছে। আমি বিশ্বাস করতে পারছি না। গত মাসে ছেলেকে রেখে চিকিৎসা নিতে ভারতে যাওয়ার কারণে শাকিবের সঙ্গে আমার ছোটখাটো ভুল বোঝাবুঝি হয়। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সেই সময় সে হয়তো রাগ হয়ে কিছু একটা করে থাকতে পারে। কিন্তু তার কয়েক দিনের মাথায় আমার সঙ্গে শাকিবের সম্পর্ক স্বাভাবিক হয়ে যায়। আর এখন
পর্যন্ত তা রয়েছে।’

যে তিন কারণে তালাক
অপুর বিরুদ্ধে তিনটি অভিযোগ এনে তালাকনামা পাঠিয়েছেন শাকিব। প্রথমত. ধর্মান্তরিত হয়ে শাকিব খানকে বিয়ে করেছিলেন অপু বিশ্বাস। কথা ছিল, তিনি মুসলিম রীতিনীতি মেনে চলবেন ও গৃহিণী হয়ে থাকবেন। কিন্তু অপু বিশ্বাস সে কথা রাখেননি। এমনকি তিনি স্বামী শাকিব খানের কোনো নির্দেশ মেনে চলেন না বলেও জানান শাকিবের আইনজীবী। দ্বিতীয়ত. গত ১৭ নভেম্বর ছেলে আব্রাম খান জয়কে কাজের মেয়ে শেলীর কাছে রেখে বাইরে থেকে তালা দিয়ে কলকাতায় যান অপু। এমন খবর পেয়ে ওই দিনই ছেলেকে দেখতে অপুর নিকেতনের বাসায় ছুটে যান শাকিব। কিন্তু তালাবদ্ধ থাকায় দেখা করতে পারেনি ছেলে আব্রামের সঙ্গে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে ছেলেকে উদ্ধারে থানায় জিডিও করেন শাকিব খান। তৃতীয়ত. কলকাতা থেকে ফিরে এসে অপু জানান, চিকিৎসা করাতে কলকাতা গিয়েছিলেন তিনি। তবে এ কথা মানতে নারাজ শাকিব। আইনজীবীর মাধ্যমে তিনি অভিযোগ করেন, ছেলে আব্রামকে কাজের মেয়ের কাছে তালাবদ্ধ অবস্থায় রেখে কলকাতায় কথিত বয়ফ্রেন্ড নিয়ে ঘুরতে গিয়েছিলেন অপু।

আব্রামের দায়িত্ব নেবেন কে?
অপুকে তালাকের নোটিশ পাঠানোর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই চলচ্চিত্রপাড়ায় কথা উঠেছে, তালাক কার্যকর হয়ে গেলে ছেলে আব্রামের দায়িত্ব নেবেন কে? বাবা শাকিব নাকি মা অপু? শাকিব দেশের বাইরে থাকায় এ বিষয়ে জানিয়েছেন তার আইনজীবী সিরাজুল ইসলাম। তিনি জানান, আব্রাম খান জয়ের ভরণপোষণ করবেন বাবা শাকিব। আর বিয়ের দেনমোহর বাবদ অপুকে ৭ লাখ টাকা পরিশোধও করবেন তিনি। কিন্তু অপু বলছেন, ‘দেনমোহরের টাকা ৭ লাখ না, ১ কোটি ৭ লাখ। যদি ডিভোর্স হয়েই যায়, তাহলে আমাকে দেনমোহরের পুরো টাকাই শাকিবকে দিতে হবে।’ উৎস: দৈনিক আমাদের সময়।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *