355407

লাশ হয়ে ফিরল স্কুলছাত্রী প্রেমিকের সঙ্গে পালানোর পর

নিউজ ডেস্ক।। চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ‘ধর্ষণের’ ঘটনায় হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়েছে। আজ শুক্রবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই কিশোরীর মৃত্যু হয়।

নিহত ওই শিক্ষার্থীর নাম আমেনা। তার বাড়ি উপজেলার জোড়খালী গ্রামে। নিহতের পরিবার জানিয়েছে, আমেনা ছেঙ্গারচর সরকারি মডেল হাইস্কুলে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

এসএসসি পরীক্ষার্থী হিসেবে কিছুদিন আগে রেজিষ্ট্রেশনও সম্পন্ন করেছে সে। আমেনার বাবার মৃত্যুর পর তার মামারা তাদের সংসার দেখভাল করছেন।

নিহতের পরিবার জানিয়েছে, কিছুদিন আগে ছেঙ্গারচর পৌর বাজারের রিয়াসাদ নামে এক দোকান কর্মচারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পরে আমেনা। রিয়াসাদ একই গ্রামের মিয়ার হোসেনের ছেলে। বিষয়টি তার পরিবার জানতে পারলে তাকে এ ধরনের সম্পর্ক থেকে সর্তক করা হয়।

কিন্তু তা না মেনে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে আমেনা কোচিংয়ের কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। প্রেমিক রিয়াসাদের সঙ্গে পালিয়ে যায়। সঙ্গে রিয়াসাদের বন্ধু একই গ্রামের সাইফুল বেপারীর ছেলে শহীদুল ইসলামও যায়।

আমেনার ভাই মাহফুজ বলেন, ‘শুক্রবার সকালে আমার মায়ের মোবাইলে একটি কল আসে। ওপাশ থেকে বলা হয়, মেয়েটি চিটাগাং রোড বটতলায় অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে আছে। পরে আমি খবর পেয়ে ওই নাম্বারে কল করে বোনকে হাসপাতাল নেওয়ার কথা বলি। পরে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। হাসপাতালে পৌঁছে দেখি আমেনা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। চিকিৎসা চলা অবস্থায় কর্তব্যরত ডাক্তার সকাল সোয়া ১০টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে শাহবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করার পর লাশ ময়নাতদন্ত শেষে বাড়িতে আনা হয়।’

নিহত আমেনার আত্মীয় টিপু বলেন, ‘আমেনার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল রিয়াসাদের। কিন্তু তারা দুজনেই আমেনাকে ধর্ষণ করেছে বলে আমাদের ধারণা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টার দিকে মোবাইলে কল করে আমেনাকে ফুসলিয়ে বাড়ি থেকে বের করে নেয় তারা। মোবাইলের কল রেকর্ডও রয়েছে আমাদের কাছে।’ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পর মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া জানান, ধর্ষণের শিকার হয়ে এক ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *