354715

বিটিভিতে তালিকাভুক্ত উপস্থাপিকা ও নৃত্যশিল্পী হলেন ট্রান্সজেন্ডার রানী, সংসদেও যেতে চান তিনি

আগামী মাস থেকে বাংলাদেশ টেলিভিশনে রুপান্তরিত নারী রানী চৌধুরীকে নৃত্যশিল্পীর পাশাপাশি উপস্থাপিকা হিসেবে দেখা যাবে। গত বছর ৫ নভেম্বর তিনি নৃত্যশিল্পী হিসেবে আবেদন করেন।
রানী জানান, ছোটবেলা থেকেই বিটিভিসহ বিভিন্ন টেলিভিশনে নৃত্যশিল্পী হিসেবে কাজ করছি।

হার্নেট টেলিভিশনের যাত্রা শুরু থেকেই সেখানে কাজ করছি। ৮ বছর বয়সে পড়াশোনার পাশাপাশি নৃত্যশিল্পের উপর বাংলা একাডেমি অব ফাইনেন্স থেকে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করি। এছাড়াও বুলবুল ললিতকলা একাডেমি থেকে নাচের ওপর চার বছরের ডিপ্লোমা কোস সম্পন্ন করে বাংলাদেশ একাডেম অব ফাইনেন্স নাচের শিক্ষক হিসেবে যোগদান করি।

যোগ্যতা ও গুণে তিনি শুধু নৃত্যশিল্পীই নয়, মডেল হিসেবে কাজ করছেন বিশ্বরঙসহ নামিদামি ব্র্যান্ডে। তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের স্বার্থে কাজ করছেন জানিয়ে বলেন, বর্তমানে আমি মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটির সাংগঠনিক সম্পাদক পদে রয়েছি। বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির সদস্য হিসেবেও কাজ করেছি।

জয় প্রকাশ: অনায়াসেই সুরের নদীতে নৌকায় দুলুনি
সংসদ সদস্য পদের জন্য নমিনেশন পত্র পাওয়ার বিষয়টি জানিয়ে বলেন, তৃতীয় লিঙ্গের লিঙ্গের মানুষ অবহেলিত, এই একটা পরিচয়ের কারণে তারা সমাজ ও পরিবারছাড়া। এসকল মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করে দিতে হবে।

নিজ সম্পর্কে রানী বলেন, ১৯৯০ সালে বরিশালের একটি হোটেল কক্ষে এক নারীর মৃতদেহের পাশ থেকে সদ্য জন্ম নেয়া শিশুকে উদ্ধার করে হোটেল কর্মীরা। ঢাকার শ্যামলীর এসওএস শিশুপল্লী কর্তৃপক্ষ তার নাম দেন মাসুদ। বাবা শাহজাহান ও মা আলেয়া বেগমের কাছে তিনি পালিত হন। হারম্যান মেইনার স্কুলে তার শিক্ষাজীবন শুরু।

তিনি বলেন, পঞ্চম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় পরিবর্তন লক্ষ্য করি। মেয়েদের মতো সাজ ও তাদের সঙ্গে মিশতে পছন্দ করি। ২০১৮ সালে রুপান্তরিত হয়ে নাম রাখা হয় রানী চৌধুরী।

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *