352554

দেশের মানুষের অন্ন ও বস্ত্রের সমস্যার সমাধানের পর গৃহহীনদের মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী: তথ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক।। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন, অন্ন ও বস্ত্রের পর বাসস্থানের সমস্যাকে চিহ্নিত করে প্রধানমন্ত্রী মুজিববর্ষে এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছিলেন-ঘর করে দেবো।

সেই ঘোষণা শুধু ঘোষণার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেনি। তিনি একদিনে ৭০ হাজারের মতো ঘর উদ্বোধন করেছেন।

যারা ঘর পেয়েছেন তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ভোটের সময় আসলে অনেক রকমের দল আপনাদের সামনে হাজির হবে। তাদের বলতে হবে কখনো খবর নাওনি। বদমাইশরা আবার এসেছো ধোঁকা দিতে, এমন করে তাদের জবাব দিতে হবে। পৃথিবীর অন্য কোনো দেশে এভাবে একদিনে ৭০ হাজার পরিবারকে ঘর দেওয়া উদ্বোধন হয়েছে কিনা।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশ এখন খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশ। আমরা ক্ষুদাকে জয় করেছি। ভরদুপুরে কিংবা সন্ধ্যার পরে শহরের অলিগলিতে কিংবা গ্রাম গ্রামান্তরে “মা আমাকে একটু বাসি ভাত দেন” সেই ডাক এখন আর শোনা যায় না। কারণ বাসি ভাতের সমস্যা সমাধান হয়ে গেছে অনেক আগে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, দেশকে ভিক্ষুকমুক্ত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী উদ্যোগ নিয়েছেন। এরপরও কিছু ভিক্ষুক আছে। তবে বাংলাদেশে আছে তা নয়, অনেক দেশে ভিক্ষাবৃত্তি নিষিদ্ধ হওয়া সত্ত্বেও রয়েছে। এখন কেউ ভিক্ষুককে দুই টাকা দিলে দুইটা গালি দেবে। ৫ টাকা দিলে আপাদমস্তক তাকিয়ে দেখবে। ১০ টাকার নোট দিলে মোটামুটি খুশি হবে। আগে দেশে বিদেশ থেকে পুরনো কাপড় আসতো, সেগুলো কিনে পরে সাহেব সাজার চেষ্টা করতাম। এখন বাংলাদেশ থেকে তৈরি পোশাক বিদেশে রপ্তানি হয়।

শনিবার রাঙ্গুনিয়ায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার আশ্রয়নের ঘর ও জমির দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *