350087

যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসী দেশের কালো তালিকা থেকে বাদ গেল সুদানের নাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সন্ত্রাসী দেশের কালো তালিকায় রাখার ২৭ বছর পর “সন্ত্রাসবাদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষক” হিসেবে সুদানের নাম বাদ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের নাম ওই তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়। ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার সুফল পেল আফ্রিকার দেশটি। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সুদানের বিষয়ে নতুন এ সিদ্ধান্তের প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছেন।

সুদানের যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। দূতাবাসের অফিসিয়াল ফেসবুক পোস্টে বলা হয়, সোমবার থেকে সুদানের নাম আর কালো তালিকায় থাকছে না। ৪৫ দিন ধরে কংগ্রেশনাল পর্যালোচনার পরে দেশটির বিষয়ে আগের মূল্যায়ন পরিবর্তন করা হয়েছে বলেও জানায় দূতাবাস। দ্রুত এই সিদ্ধান্ত ফেডারেল রেজিস্টারে প্রকাশ করা হবে। সুদানে গত বছর দীর্ঘদিনের শাসক ওমর আল বশিরের পতনের পর বর্তমান অন্তবর্তীকালীন সরকার দায়িত্ব পালন করছে।

কালো তালিকা থেকে সুদানের নাম প্রত্যাহার এ সরকারের অগ্রাধিকারভিত্তিক এজেন্ডা ছিল। ১৯৯৩ সালে আল বশির সরকারের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে সন্ত্রাসে পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগ তুলে কালো তালিকায় সুদানের নাম যোগ করে যুক্তরাষ্ট্র। এর কারণে এতোদিন সুদান ত্রাণ এবং আন্তর্জাতিক বড় দাতাসংস্থাগুলোর কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছিল। যুক্তরাষ্ট্রের এই তালিকায় এখনো তিনটি রাষ্ট্রের নাম রয়েছে। এগুলো হলো ইরান, উত্তর কোরিয়া ও সিরিয়া। সূত্র: আলজাজিরা

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *