352595

এশিয়ার ‘মাদক সম্রাট’ সে চি লপ গ্রেফতার

ডেস্ক রিপোর্ট।। বিশ্বের সবচেয়ে বড় মাদক পাচারকারী দলগুলোর একটির কথিত প্রধানকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি করছে নেদারল্যান্ডসের পুলিশ। ৫৬ বছর বয়সী সে চি লপ নামের ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল অস্ট্রেলিয়া। রবিবার (২৪ জানুয়ারি) খবরটি নিশ্চিত করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি।

বিশ্বের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকার শীর্ষদের একজন সে চি লপ দীর্ঘদিন গা ঢাকা দিয়ে ছিলেন। অবশেষে তাকে আমস্টারডামের স্কিপোল এয়ারপোর্ট থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এশিয়াজুড়ে তার রয়েছে ৭০ বিলিয়ন ডলারের আধিপত্য বিস্তারকারী অবৈধ মাদকের বাজার।

সে চি লপকে বিচারের মুখোমুখি করার জন্য অস্ট্রেলিয়া এখন প্রত্যর্পণের চেষ্টা করবে। অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল পুলিশের (এএফপি) বিশ্বাস, সে চি লপের কোম্পানি দেশটিতে ৭০ শতাংশ অবৈধ মাদক প্রবেশের জন্য দায়ী।

Tse Chi Lop is suspected by police of running a vast drug cartel in Asia that rakes in up to $17 billion a year, drawing comparisons to El Chapo and Pablo Escobar. But unlike the Latin drug lords, little is known about him https://t.co/jK85ltIRVI pic.twitter.com/R3UbgiJznQ

— Reuters (@Reuters) October 14, 2019

২০১৯ সালে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স সে চি সম্পর্কে একটি বিশেষ অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে – যেখানে তাকে এশিয়ার ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ ব্যক্তি হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

সংবাদ সংস্থাটি ঐ প্রতিবেদনে জাতিসংঘের তথ্যের বরাত দিয়ে জানায়, শুধু মেথঅ্যামফেটামিন বিক্রি করে ২০১৮ সালে সিন্ডিকেটের আয় হয়েছিল ১ হাজার ৭০০ কোটি ডলার।

আরও পড়ুন: নয়ডায় কিডনি পাচারকারী চক্রের সদস্য গ্রেফতার

রয়টার্সের তথ্য অনুযায়ী, সে চিকে ধরার জন্য পরিচালিত অভিযানে বিভিন্ন দেশের প্রায় ২০টি সংস্থা কাজ করেছে।

সে চি ৯০-এর দশকে যুক্তরাষ্ট্রে মাদক চোরাচালানের অভিযোগে ৯ বছর কারাগারে ছিলেন।

অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমের ভাষ্য অনুযায়ী, গত দুই দশকে দেশটির পুলিশের ‘সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ’ পদক্ষেপ বলে অভিহিত করছে দেশটির গণমাধ্যমগুলো।

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *