351995

অবশেষে স্বীকৃতি পেলেন পপি

নিউজ ডেস্ক।। বিয়ের দাবিতে চার দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছিলেন কলেজ ছাত্রী পপি খাতুন। অনড় মনোভাব নিয়ে অনশন করে চলেছিলেন তিনি।

নানা চাপ সত্ত্বেও দাবি থেকে সরে আসেননি ওই ছাত্রী। সোমবার (১১ জানুয়ারি) বিকেলে নানা নাটকীয়তা শেষে পুলিশ, জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয়দের মধ্যস্থতায় সম্পন্ন হয়েছে বিয়ে।

ঘটনাটি ঘটেছে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার পিপরুল ইউনিয়নের ঠাকুর লক্ষীকোল গ্রামে। প্রেমিক সাইফুল ওই গ্রামের সিদ্দিক মন্ডলের ছেলে এবং প্রেমিকা পপির বাড়ির পাশের সোনার মোড় গ্রামে। বিয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে পিপরুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কলিম উদ্দীন বলেন, উভয় পরিবারের সম্মতিতে ৬ লাখ এক টাকা দেনমোহর ধার্য করে বিয়ে সম্পূর্ণ হয়।

কলিম উদ্দীন জানান, দীর্ঘ ২ বছরের প্রেম করার পর বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিন মাস স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে গাজীপুর জেলার কামরাঙ্গা এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করে তারা।

পরে নাটোর আসার পর ওই প্রেমিক বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বাসা থেকে পালিয়ে যায়। শুক্রবার থেকে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন শুরু করেন ওই ছাত্রী। এরপর পুলিশ ও স্থানীয়দের নিয়ে সকলে মিলে সমাধান করে বিকেলে বিয়ে পড়ানো ওই প্রেমিক জুটির।

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *