349862

এরদোয়ানের কবিতায় ক্ষুব্ধ ইরান, পাল্টাপাল্টি রাষ্ট্রদূত তলব

তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ানের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ তোলায় ইরানের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে আঙ্কারা। শুক্রবার কূটনৈতিক সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

তুরস্ক এবং প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগের নিন্দা জানাতে রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ ফারাজমান্দকে তলব করেছে তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। একই ইস্যুতে তুর্কি রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠিয়েছে ইরান। গণমাধ্যমে কথা বলার অনুমতি না থাকায় নাম প্রকাশ না করার শর্তে কূটনৈতিক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বৈঠকে ইরানের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে তুরস্ক। জোর দিয়ে বলেছে, তুরস্ক সম্পর্কিত কোনো ইস্যুতে ইরানের আপত্তির প্রতিক্রিয়া জানাতে, অন্যান্য উপায় থাকতে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সামাজিকমাধ্যম টুইটারকে বেছে নেওয়া অগ্রহণযোগ্য।

বলা হয়, তুরস্ক-ইরানের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের মধ্যে যে প্রক্রিয়ায় প্রতিক্রিয়া জানানো হয়েছে তা সংগতিপূর্ণ নয়। যারা এ আচরণ করেছে তারা দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক নষ্ট করতে চায়।

শুক্রবার ইরানের নিযুক্ত তুব্তি রাষ্ট্রদূতকে তলব করে তেহরান। আজারবাইজানে একটি অনুষ্ঠানে এরদোয়ানের আবৃত্তি করা একটি কবিতাকে ঘিরে এ তলব।

লিখিত বক্তব্যে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদেহ বলেন, কঠোর নিন্দা জানানোর জন্য রাষ্ট্রদূত দেরয়া ওরসকে ডেকেছেন ইরানি সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

বিবৃতিতে বলা হয়, ওরসের কাছে দ্রুত ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

টুইট বার্তায় ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ দাবি করেছেন, এরদোয়ানের আবৃত্তি করা কবিতা ইরানের অখণ্ডতাকে লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার আজারবাইজানের রাজধানী বাকুতে অনুষ্ঠিত বিজয় কুচকাওয়াজে অংশ নেন এরদোয়ান। নার্গোনো-কারাবাখে সামরিক বিজয় উদযাপনের লক্ষে ওই আয়োজন করা হয়। ৩০ বছর ওই অঞ্চলটি আর্মেনিয়ার দখলে ছিল।

অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এরদোয়ান আজারবাইজানের বিখ্যাত একটি লোকগানের কয়েক লাইন আবৃত্তি করেন। ইরান-আজারবাইজানকে বিভক্ত করা আরাস নদীকে নিয়ে রচিত গানটি।

ইরানের দাবি, ওই গানে বিতর্কিত কয়েকটি লাইন আছে; যা দেশটির অখণ্ডতাবিরোধী। এরপরই এরদোয়ানের বক্তব্যের কঠোর প্রতিবাদ জানায় তেহরান।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *