346701

‘ট্রাম্প-মেলানিয়ার বিয়েটা একটি চুক্তি ছাড়া কিছু নয়’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গুঞ্জন চলছিল কয়েক দিন থেকেই। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পরে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিবাহ বিচ্ছেদও নাকি আসন্ন। জল্পনা দানা বেঁধেছিল ট্রাম্প দম্পতির দুই সহযোগীর কথায়। এ বার সেই জল্পনা আরও স্পষ্ট হল। ১৫ বছরের দাম্পত্যে ইতি টানতে চলেছেন ডোনাল্ড ও মেলানিয়া।

মেলানিয়ার প্রাক্তন উপদেষ্টা স্টেফানি ওকফ এবং ট্রাম্পের প্রাক্তন সহযোগী ওমারোসা নিউম্যান জানিয়েছেন, ১৫ বছরের দাম্পত্যে ইতি টানতে চলেছেন ডোনাল্ড ও মেলানিয়া। হোয়াইট হাউসে দীর্ঘদিন ধরে তাঁদের শয়নকক্ষ আলাদা। ওদেঁর বিয়েটা একটি চুক্তি ছাড়া কিছুই নয়। প্রসঙ্গত, বেশ কিছু দিন ধরেই ট্রাম্প-মেলানিয়ার সম্পর্কে শৈত্যের কথা শোনা যাচ্ছিল।

যদিও ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের জয়ের খবরে মেলানিয়ার কান্না মোছার ছবি ছড়িয়ে পড়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ঘনিষ্ঠ মহলে মেলানিয়া তখন জানিয়েছিলেন, ট্রাম্প জিতবেন বলে তিনি কল্পনাও করেননি। মেলানিয়া এখন মুহূর্ত গুনছেন। ট্রাম্প পরাজয় স্বীকার করে হোয়াইট হাউস ছাড়লেই মেলানিয়া বিচ্ছেদের পথে হাঁটবেন।

ভোটগণনার গোড়া থেকেই দেশের নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলে আসছেন ট্রাম্প। তাঁর অভিযোগ, চুরি করে ভোটে জিতেছে জো বাইডেনের দল। জনসমক্ষে এ বিষয়ে মুখ না-খুললেও মেলানিয়া যে ট্রাম্পকে পরাজয় স্বীকার করে নিতে বলেছেন, তা ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রেই খবর। শুধু মেলানিয়া নন, ট্রাম্পের অন্যতম উপদেষ্টা এবং জামাই জ্যারেড কুশনারও বিদায়ী প্রেসিডেন্টকে ভোটের ফল মেনে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

তবে বিচ্ছেদ নিয়ে ট্রাম্প, মেলানিয়া বা তাদের পরিবারের কেউ এখনও পর্যন্ত মুখ খোলেননি। শোনা যায়, দ্বিতীয় স্ত্রী মার্লা মেপলস-এর সঙ্গে ট্রাম্পের এমন চুক্তিই রয়েছে যে ট্রাম্পের সমালোচনা করে কোনও সাক্ষাৎকার দিতে বা বই লিখতে পারবেন না মার্লা। সে ক্ষেত্রে বিচ্ছেদ নিয়ে মেলানিয়াও যে নীরব থাকবেন সে কথা বলাই বাহুল্য।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *