346322

স্বামীর পরাজয়ে কিছুই বলছেন না মেলানিয়া

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরাজয় হয়েছে। ট্রাম্প বাইডেনের কাছে পরাজয় মানতে নারাজ। তিনি আইনি লড়াইয়ের পথে হাঁটার ঘোষণা দিয়েছেন।

তবে স্বামী ট্রাম্পের পরাজয় কিংবা বাইডেনের জয়ের বিষয়ে এখনও মুখ খোলেননি মার্কিন ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা সিএনএনকে বলেছেন, ভোট নিয়ে মেলানিয়া কোনো কথা বলবেন না বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

ট্রাম্পের নির্বাচনী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত হোয়াইট হাউসের ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, নির্বাচনে ফল প্রকাশ হওয়ার পর মেলানিয়া ট্রাম্প চুপচাপ রয়েছেন। তিনি ভোট বা ভোটপরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে ট্রাম্প পরিবারের অন্যান্য সদস্য বা ট্রাম্প প্রশাসনের জ্যেষ্ঠ সদস্যদের সঙ্গে তিনি কোনো বৈঠক করেননি।

গত মঙ্গলবার ভোট দেয়ার পর গত দুদিন ধরে জনসমক্ষে দেখা যায়নি মেলানিয়াকে। তবে গত বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের ইস্ট রুমে জনসমক্ষে আসেন ট্রাম্প ও মেলানিয়া। ওই সময় সাংবাদিকদের ট্রাম্প বলেন, মেলানিয়া ভালো আছেন। তবে পাশে দাঁড়ানো মেলানিয়া কোনো কথা বলেননি।
ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, মেলানিয়া হোয়াইট হাউসেই রয়েছেন। তিনি কোথাও যাননি।

গত শুক্রবার একটি টু্‌ইট করেন মেলানিয়া। তবে সেখানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বিষয়ে কোনো কথা বলেননি তিনি। এদিকে স্বামীর সঙ্গে হোয়াইট হাউসে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন নতুন ফার্স্টলেডি জিল বাইডেন।

শিগগিরই ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের স্থলাভিষিক্ত হতে যাচ্ছেন পূর্ণকালীন এ কলেজ শিক্ষক। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে একজন পরিপূর্ণ পেশাজীবী নারী হিসেবে তিনিই প্রথম ফার্স্টলেডি হতে যাচ্ছেন।

জো বাইডেন ও জিল বাইডেন দুজন দুই জগতের মানুষ। জো আগাগোড়া রাজনীতিক। বিপরীতে জিল পুরোদস্তুর শিক্ষক। মূলত ইংরেজির একজন অধ্যাপক হিসেবে কলেজে পড়ান তিনি। ফার্স্টলেডি হওয়ার পরও তিনি নিজের শিক্ষকতা পেশা চালিয়ে যেতে চান। সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময়ে সেকেন্ড লেডি হিসেবে প্রায় ৮ বছর ধরে তৎকালে ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামার সঙ্গে বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করেছেন। পাশাপাশি চালিয়ে গেছেন শিক্ষকতাও।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *