179966

আমার বয়স তখন ১৪, গানের শিক্ষক বলেছিলেন ঘরে এসো

এবার এক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করলেন মিউজিশিয়ান তথা রবিশঙ্করের কন্যা আনুশকা শঙ্কর। মাত্র ১৪ বছর বয়সেই তাঁর সঙ্গে ঘটেছিল সেই ঘটনা।

বাড়িতেই এক শিক্ষক আসতেন তাঁকে গান শেখাতে। আনুশকা জানান, ‘ওই শিক্ষককে আমি ভীষণ শ্রদ্ধা করতাম। ‘ কিন্তু এক দিন ওই শিক্ষক তাঁকে বলেছিলেন, তাঁর ঘরে গেলে তবেই তিনি বিশেষ সুযোগ দেবেন।
আনুশকার কথায়, ‘বাইরে থেকে আমার এই কষ্টটা কেউ বুঝতে পারেনি। চার বছর পর আমি প্রতিবাদ করেছিলাম। আমিই হয়তো প্রথম মেয়ে, যে তাঁর নিজের শিশু বয়সে যৌন হেনস্থার অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছিলাম এবং ভিডিও মারফত প্রতিবাদ করেছিলাম। ‘

এরপরও নিউ ইয়র্কে থাকাকালীন একাধিকবার যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন আনুশকা। এক আত্মীয়ই নাকি তাঁর যৌন নির্যাতনের কারণ হয়েছিলেন। এর আগে নারী অধিকার সম্পর্কিত একটি অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, ‘এখন আমি প্রাপ্ত বয়স্ক। আমি গানের দুনিয়ায় আছি। কাজের সূত্রেই আমাকে দেশে-বিদেশে অনেক জায়গায় যেতে হয়। নাইট ক্লাবেও যেতে হয় আমাকে। কিন্তু শুধুমাত্র রবি শঙ্করের মেয়ে বলেই আমাকে আলাদা করে নিরাপত্তা দেওয়া হয়। কিন্তু একবার ভাবুন তো, যদি আমার বাবা একজন সেলিব্রেটি না হতেন, আমি একজন সাধারণ ঘরের মেয়ে হতাম, তাহলেও কি আমি ততটাই নিরাপদ?’
তিনি বলেন, ‘একটা টুইট করেই প্রতিবাদ জানালে চলবে না। সমাজে পরিবর্তন আনা প্রয়োজন। সূত্র: কলকাতা

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *