178591

‘মাকে সঙ্গে নিয়েই দেশের বাইরে চলতে থাকে আমার জীবনযুদ্ধ’

ভালো গল্প ও চরিত্রের জন্য অনেকদিন ধরেই অপেক্ষা করছিলেন ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়িকা পূর্ণিমা। এজন্য তিনি মাঝে অনেক ছবির প্রস্তাব পেলেও সেসবে সাড়া দেন নি। কারণ মনপছন্দ একটি গল্পের জন্য অপেক্ষা ছিল তার। এবার অবসান হয়েছে সে অপেক্ষার। অবশেষে হাতে পেয়েছেন সেই ধরনের একটি পছন্দের গল্প। ছবির নাম ‘ভবঘুরে’।

ছবিটি পরিচালনা করবেন স্বপন আহমেদ। নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকে এ ছবির চিত্রায়ণ শুরু হবে। এরইমধ্যে ছবির বিষয়ে পরিচালকের সঙ্গে কথা হয়েছে পূর্ণিমার। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এর আগে আমার অভিনীত ‘মনের মাঝে তুমি’ ছবির পুরো চিত্রায়ণ দেশের বাইরে হয়েছে। এবারের ছবির গল্পটি ইউরোপের। আমার নতুন ছবির নাম ‘ভবঘুরে’। ইউরোপের শহর ফ্রান্সে বেড়ে ওঠা একটি মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করব। অনেক সুন্দর একটি কাহিনী।

গল্পটি নিয়ে পরিচালক এরই মধ্যে কথা বলেছেন। ছবির কাহিনীটা আমার পছন্দ হয়েছে। নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহের পর ইউরোপে এ ছবির শুটিং শুরু হবে। সম্প্রতি আমি এ্যাম্বেসীতে পাসপোর্ট জমা দিয়েছি। সব ঠিক থাকলে আগামী মাসেই ইউরোপে রওনা করব। ফ্রান্সের কে কে প্রোডাকশনের পাশাপাশি এ ছবির মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেড। পূর্ণিমার কাছে আবারো জানতে চাওয়া হয়, নতুন এ ছবিতে তার চরিত্রের নাম কি ? আর কি ধরনের চরিত্রে এবার বড়পর্দায় হাজির হতে যাচ্ছেন তিনি ? এর জবাবে পূর্ণিমা বলেন, এ ছবিতে আমার চরিত্রের নাম থাকবে নীরা। কাহিনীতে দেখা যাবে, পড়াশুনা শেষ করে চাকুরী খুঁজতে থাকি আমি। আর আমার বাবা বেশ কয়েক বছর আগেই মারা গেছেন।

তাই মাকে সঙ্গে নিয়েই দেশের বাইরে চলতে থাকে আমার জীবনযুদ্ধ। এরমধ্যে একটি মিথ্যে মামলাতেও ফেঁসে যাই আমি। এর চেয়ে বেশি কিছু এখন জানাতে চাই না। ফ্রান্স ও সুইজারল্যান্ডে এ ছবির চিত্রায়ণ হবার কথা রয়েছে। আশা করি, ছবিটি ভালো হবে। এখন শুধু ভিসার জন্য অপেক্ষা করছি। উল্লেখ্য, ১৯৯৭ সালে জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন তোমার আমার’ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দিলারা হানিফ রীতা ওরফে পূর্ণিমার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে।

প্রায় বিশ বছরের ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত তার অভিনীত ১০০ এর মতো ছবি মুক্তি পেয়েছে। অনেক জনপ্রিয় তারকার বিপরীতে সফলভাবে কাজ করেছেন তিনি। কাজী হায়াত পরিচালিত ‘ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না’ ছবির জন্য ২০১০ সালে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন চলচ্চিত্রের দর্শকপ্রিয় এই অভিনেত্রী। সবশেষ গত মাসে ইফতেখার আহমেদ ফাহমীর ‘টু বি কন্টিনিউড’ ছবিটি মুক্তি পায় তার।

এখানে গায়ক ও অভিনেতা তাহসানের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি। মাঝে বিজ্ঞাপন ও টিভি নাটকে নিয়মিত কাজ করতে দেখা গেছে পূর্ণিমাকে। এদিকে নতুন একটি ভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠানেও সামনে দর্শক তাকে দেখতে পাবেন। ‘সেরা রাঁধুনি ১৪২৪’ নামের রান্নার একটি অনুষ্ঠানে তিনি বিচারক হিসেবে অংশ নিবেন।

টেলিভিশনে রান্নার অনুষ্ঠান দেখতে দেখতে বিশ্বের কয়েকজন শেফ পূর্ণিমার পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন। এদের মধ্যে নাইজেলা লসন, ইভান রেমন আর সঞ্জীব কাপুর তার খুব প্রিয় শেফ। তাদের কারও রান্নার অনুষ্ঠান দেখে ঘরে বসে সেই রেসিপি তৈরির চেষ্টা করেন এই নায়িকা। পূর্ণিমা বলেন, সঞ্জীব কাপুরের অনেক রেসিপি টেলিভিশনে দেখে বাসায় রান্নার চেষ্টা করি।

একেবারে ছোটবেলা থেকে তার রেসিপি দেখি। এছাড়া বাংলাদেশের টমি মিয়াও তো খুবই বিখ্যাত। তার রান্নাও দেখি। সিদ্দিকা কবীর আপার রান্নার অনুষ্ঠান আমার খুব পছন্দের ছিল। এর আগে রান্নার অনুষ্ঠানে সেই অর্থে প্রস্তাব আসেনি। এবারের প্রস্তাবটি আমার কাছে ইন্টারেস্টিং মনে হয়েছে। তাই রাজি হয়ে গেলাম।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *