তুরস্কের ইস্তাম্বুলে আদালতে পুলিশের অভিযান

celebrations_afterগত এক মাসে তুরস্কে হাজার হাজার সেনাসদস্য এবং সরকারি কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছে। ইস্তাম্বুলের আদালতের তিনটি কমপ্লেক্সে পুলিশী অভিযান চালানো হয়েছে।

এই অভিযানের আগে তুর্কী সরকারের ১৭৩ জন কৌঁসুলি ও অন্যান্য আদালত কর্মীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়। অভিযানের সময় কিছু অফিস ভবনে তল্লাশি চালানো হয়। সেখান থেকেও কিছু লোককে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়।

পুলিশ বলছে, আটক ব্যক্তিদের এখন জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাদের সন্দেহ, এরা সবাই তুরস্কের সম্প্রতি ব্যর্থ অভ্যুত্থানের রূপকার যুক্তরাষ্ট্র-প্রবাসী ধর্মীয় নেতা ফাতুল্লাহ গুলেনের অনুসারী। কিন্তু মি. গুলেন বরাবরই তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছেন।

তুর্কী সরকার এখন চায় যে যুক্তরাষ্ট্র সরকার মি. গুলেনকে তাদের হাতে তুলে দিক। গতমাসে ঐ সেনা অভ্যুত্থানের সময় হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে আসে। তুরস্কে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের ঠিক এক মাসের মধ্যে অন্তত ২৩ হাজার ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে কিংবা আটক করা হয়েছে। ৮০ হাজার কর্মচারীকে ছাঁটাই অথবা বা সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

পশ্চিমা সরকারগুলো অভিযোগ করছে যে তুরস্কে এখন শুদ্ধি অভিযান চলছে। কিন্তু তুর্কী সরকার সেই অভিযোগ মেনে নিতে রাজি না। তাদের বক্তব্য, যাদের আটক করা হয়েছে তাদের সাথে গুলেনপন্থী নেটওয়ার্কের যোগাযোগ রয়েছে। কিন্তু সমালোচকরা বলছেন, তুরস্কের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় শুদ্ধি অভিযানে এরদোয়ান সরকার তার বিরোধীদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করছে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *