360930

ঘরে খাবার নেই, ৩ মাসের সন্তানকে বিক্রি করলেন মা!

নিউজ ডেস্ক।। সংসারের অভাব-অনটনের কারণে সন্তানসহ নিজেদের তিন বেলা খাবার না জোটায় নিজের শিশু সন্তানকে বিক্রি করে দিলেয়েছেন এক মা।

মাত্র তিনমাস বয়সের ওই কন্যা শিশুকে ৪০ হাজার টাকার বিনিময়ে অন্যের হাতে তুলে দেওয়ার ঘটনায় তোলপাড় চলছে এলাকাজুড়ে। বরিশালের হিজলা উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের পূর্বকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

হিজলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বকুল চন্দ্র কবিরাজ এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে শিশুর বাবা মুসা সরদার শিশু বিক্রির বিষয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

শিশুর মা আলোমতি বেগম ক্ষোভ প্রকাশ করে সাংবাদিকদের কাছে জানতে চান, ‘এত দিন কোথায় ছিলেন আপনারা? কোথায় ছিল এত মানবদরদী। কই সেদিন তো কাউকে দেখিনি। এলাকার কোনো চেয়ারম্যান-মেম্বার আইসা একবার দেখিনি। না খেয়ে কত দিন শিশু বাচ্চা নিয়ে কেঁদেছি, আমি আমার বাচ্চাকে কম কষ্টে বিক্রি করিনি। ক্ষুধার জ্বালা সইতে না পেরে আমার বাচ্চাকে বিক্রি করে দিয়েছি।

তিন সন্তানের এই জননী আরও বলেন, ‘আমার স্বামী জেলে, সে নদীতে মাছ ধরে। গত কয়েক মাস যাবৎ নদীতে কোনো মাছ নেই। তাই সংসার চালাতে পারছেন না। সরকারি কোনো সাহায্য ভিজিডি-ভিজিএফ, রেশনর্কাড, জেলে কোনো কিছুই তারা পাননি। চুলায় এক দিন আগুন জ্বললে, তিন দিন জ্বলে না। না খেয়ে কতদিন থাকতে পারে মানুষ।’

হরিনাথপুর ইউপির ৮ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য মো. ফয়জুল হক লিটন বলেন, ‘আমি ঈদে তাকে ১০ কেজি চালের দুটি স্লিপ দিয়েছি। তার স্বামী কোনো কাজ করে না। ঘোরাফিরা করে, অভাব তো তাদের থাকবেই।’

হরিনাথপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুর রহমান সিকদার জানান, দালালের মাধ্যমে ৪০ হাজার টাকার বিনিময়ে শিশুটিকে বিক্রি করে দেয়। তার স্বামী কোনো কাজ না করে বেকার থাকেন, এটাই তাদের অভাবের একমাত্র কারণ।

গত ঈদে স্থানীয় মেম্বরের মাধ্যমে তাকে ২০ কেজি চাল দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে চেয়ারম্যান জানান, শিশু বাচ্চাকে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিতে চেষ্টা করা হচ্ছে।

হিজলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বকুল চন্দ্র কবিরাজ বলেন, ‘লোকমুখে জানতে পেরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে শিশু বাচ্চাকে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।’

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *