359457

হানিমুনের রাতেই স্বামী স্ত্রীকে জানালেন তিনি পুরুষ নন

আজব ডেস্ক।। দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের পর বিয়ে, তারপর হানিমুনে গিয়ে স্ত্রীকে গোপন কথা জানিয়ে চমকে দিলেন ব্রিটেনের এক বাসিন্দা। মধুচন্দ্রিমার রাতেই এই গোপন তথ্য ফাঁস করেন তিনি।

ঘটনাটি ঘটে ইংল্যান্ডে। এক ব্রিটিশ গ্রাফিক ডিজাইনার এক মার্কিন মহিলার সঙ্গে বিয়ে করেন। তারপর মধুচন্দ্রিমায় গিয়ে ফাঁস হয় সত্য। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম মিরর ডট ইউকে-তে এই খবরটি প্রকাশিত হয়েছে।

প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, আগে থেকে প্রেম ছিল তাদের। তারপর হয় বিয়ে। বিয়ের পর স্বামী-স্ত্রী যান হানিমুনে। আর সেখানে গিয়ে স্ত্রী জানতে পারেন যে তার স্বামী পুরুষ নন। তিনি ট্রান্সজেন্ডার বা বৃহন্নলা।

আরো জানা যায়, ৩৩ বছর বয়সী জ্যাক এবং ৩০ বছর বয়সী হার্বির দেখা হয় ২০০৭ সালে। অনলাইনেই সাক্ষাৎ হয় তাদের। ধীরে ধীরে ২০১০ সালে একে অপরকে প্রেম নিবেদন করেন তারা। তারপর বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন। ২০১৮ সালে বিয়ে করেন তারা। দু’মাস পর তারা মধুচন্দ্রিমায় যান।

মধুচন্দ্রিমায় গিয়ে জ্যাক তার স্ত্রীর কাছে নিজের মনের কথা খুলে বলেন। জানান যে তিনি মনে প্রাণে একজন মহিলা এবং নিজের পুরুষ শরীরের বদলও চান তিনি। অর্থাৎ তিনি নিজের লিঙ্গ পরিবর্তন করতে চান। হার্বিও এতে আপত্তি জানান না। খুশি মনেই মেনে নেন।

নিজেই স্বামীর ইচ্ছাপূরণে ৪৫হাজার পাউন্ড খরচ করেন হার্বি। লিঙ্গ পরিবর্তনের পর জ্যাকের বর্তমান নাম রিয়ানা। এরপর জ্যাক এবং হার্বি আরও একবার বিয়ে করছেন। নতুন রূপে জ্যাক ওরফে রিয়ানাকে স্বীকার করে নিয়েছেন হার্বি।

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *