359365

আর্থিক সংকটে পড়ে ৫ হাজার টাকায় শিশু মেয়েকে বিক্রি করলো বাবা!

নিউজ ডেস্ক।। চাঞ্চল্যকর ঘটনা, আড়াই বছরের ছোট্ট শিশু মেয়েকে ৫ হাজার টাকায় বিক্রির অভিযোগ উঠেছে বাবার বিরুদ্ধে। আর ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই মেয়ের ঠাকুরদা রবীন্দ্র বারিক ছেলে রমেশের বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর দায়ের করেন।

এছাড়াও অভিযোগে লিটু জেনা নামে আরেক ব্যক্তির নাম রয়েছে। তিনিই শিশুটিকে কিনে নিয়েছিলেন। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের ওড়িশার বিনঝড়পুরের সাহাদেবপুর গ্রামে।

এদিকে পুলিশ জানিয়েছে, শিশুর বাবা রমেশ কপমা পাঁচ হাজার টাকা ধার নিয়েছিল লিটু জেনার কাছ থেকে। দীর্ঘদিন ধরেই আর্থিক সংকটে ভুগছিল তার পরিবার। এ কারণে টাকা ফেরানোর জন্য শিশু মেয়েকে বিক্রি করার পরিকল্পনা করেন তিনি। এছাড়া লিটু মাঝে মাঝেই টাকার জন্য চাপ দিত। তাই শিশু মেয়েকে বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয়।

অপরদিকে অ্যাডিশনাল ডিজি যশবন্ত জেঠওয়া এ ঘটনায় জানিয়েছেন, রমেশ সত্যিই লিটুর থেকে ৩ বা ৫ হাজার টাকা ধার নিয়েছিল। এরপর তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে গেলে সে তার শ্বশুরকে জানায়, তার পক্ষে শিশু মেয়ের দায়িত্ব নেয়া সম্ভব নয়। লিটুর পরিবার রয়েছে, এ কারণে তার কাছেই মেয়েকে বিক্রি করে রমেশ। তবে টাকা শোধ করার জন্য মেয়েকে বিক্রি করেছিলেন কিনা তা এখনও নিশ্চিত নয়।

তথ্য মতে, শিশুটিকে উদ্ধার করে চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটিতে রাখা হয়েছে। ঘটনাটি খতিয়ে দেখে পদক্ষেপ নিতে চায় পুলিশ। শিশুর ঠাকুরদা জানিয়েছেন, অভিযোগ করার পর থানায় গিয়ে বার বার খোঁজ নিয়েছেন শিশুর। শিশুকে শিগগিরই ফেরত দেয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সূত্র : নিউজ এইটটিন

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *