352866

লিপস্টিক-নেইল পলিস লাগাতে পারবেন মার্কিন নারী সেনারা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নতুন নীতিমালায় মার্কিন নারী সেনারা লম্বা চুল পনিটেইল করে রাখতে পারবেন। আর প্রশিক্ষণ বা বিশেষ পরিস্থিতিতে চুল বেণি করে রাখা যাবে। এএফপি

মার্কিন নারী সেনারা এখন থেকে আগের চেয়ে বেশি সাজসজ্জা করতে পারবেন। পেন্টাগন সম্প্রতি এ বিষয়ে নিয়মকানুন হালনাগাদ করেছে। সে অনুযায়ী নারী সেনারা লম্বা চুল রাখতে পারবেন, নখকে বিভিন্ন রঙে রাঙাতে পারবেন এবং কানে দুলও পরতে পারবেন।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, পেন্টাগন গতকাল মঙ্গলবার এ ঘোষণা দিয়েছে। নারী সেনাসদস্যদের সাজসজ্জা–সংক্রান্ত নীতিমালা সংশোধন করা হয়েছে। বলা হয়েছে, আগে নারী সেনাদের লম্বা চুল বেঁধে রাখতে হতো। এতে হেলমেট পরতে গেলে তাঁদের অসুবিধা হতো। নতুন নীতিমালায় তা পরিবর্তন করা হয়েছে।

চুল রং করার ক্ষেত্রেও প্রাকৃতিক মৃদু রংকে প্রাধান্য দিতে হবে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, গোলাপি, সবুজ ও নীল রং চুলে লাগানো যাবে না। সাধারণভাবে ছোট দুল পরা যাবে, তবে প্রশিক্ষণ বা যুদ্ধক্ষেত্রে দুল পরা নিষিদ্ধ থাকবে।

নতুন নীতিমালায় মার্কিন নারী সেনারা লম্বা চুল পনিটেইল করে রাখতে পারবেন। আর প্রশিক্ষণ বা বিশেষ পরিস্থিতিতে চুল বেণি করে রাখা যাবে। মূলত আফ্রিকান-আমেরিকান নারী সেনাসদস্যদের আবদারের পরিপ্রেক্ষিতে চুল ছোট ছোট বেণি করে রাখার নিয়ম যুক্ত করা হয়েছে। বলা হচ্ছে, এ ব্যবস্থায় হেলমেট পরতেও কোনো সমস্যা হবে না।

আবার নারী সেনারা পুরুষদের মতো করে মাথা ন্যাড়াও করে ফেলতে পারেন। অনেক পুরুষ সেনাসদস্য এ কাজ করে থাকেন। আগে নারীদের জন্য এই নিয়ম প্রযোজ্য ছিল না। কিন্তু এখন থেকে নারীরাও তা করতে পারবেন।

নতুন নিয়মের আওতায় নারী সেনাসদস্যরা নেলপলিশ ও লিপস্টিক ব্যবহার করতে পারবেন। কর্মরত অবস্থায়ও এসব ব্যবহার করা যাবে। তবে উজ্জ্বল রং এ ক্ষেত্রে পরিহার করতে হবে। নখ কিছুটা বড়ও রাখা যাবে।

চুল রং করার ক্ষেত্রেও প্রাকৃতিক মৃদু রংকে প্রাধান্য দিতে হবে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, গোলাপি, সবুজ ও নীল রং চুলে লাগানো যাবে না। সাধারণভাবে ছোট দুল পরা যাবে, তবে প্রশিক্ষণ বা যুদ্ধক্ষেত্রে দুল পরা নিষিদ্ধ থাকবে।

গত বছর মার্কিন সেনাবাহিনীতে নারীদের সাজসজ্জাসংক্রান্ত বিধিবিধান পরিবর্তনে একটি পর্যালোচনা শুরু হয়। সাবেক প্রতিরক্ষাসচিব মার্ক এসপার এর তত্ত্বাবধান করেছিলেন। সেনাবাহিনীতে বর্ণবৈষম্য ও সংখ্যালঘুদের প্রতি অবিচার বিষয়ে এই পর্যালোচনা করা হয়। – প্রথম আলো

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *