352747

রাজশাহীতে ভিক্ষুক বেশে যৌন হয়রানি, বৃদ্ধ গ্রেফতার

নিউজ ডেস্ক।। রাজশাহীতে ভিক্ষুকের বেশে দিনে দুপুরে জনবহুল স্থানে নারী, কিশোরী ও শিশুদের যৌন হয়রানি করতেন এক বৃদ্ধ!

প্রতিদিন রাজশাহী শহরের জনবহুল সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট ও আরডিএ মার্কেট এলাকায় তার বিচরণ। ইতোমধ্যে এক ব্যক্তির ধারণকৃত এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে টনক নড়ে পুলিশের।

জড়িত বৃদ্ধকে অবশেষে সোমবার (২৫ জানুয়ারি) শনাক্ত ও গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ওই ভিডিও ক্লিপে দেখা যায়, ভিক্ষাবৃত্তির আড়ালে মেয়েদের কৌশলে যৌন হয়রানি করাই ছিল ওই বৃদ্ধের বিকৃত নেশা। ভিক্ষাবৃত্তির নামে মহানগরীর ব্যস্ততম এলাকা আরডিএ মার্কেটসহ বিভিন্ন জায়গায় ওই বৃদ্ধ এই অনৈতিক কাজ করে বেড়াতেন বলে অভিযোগ। পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়া ওই বৃদ্ধের নাম বুলু (৬২)। নগরীর পাঁচানী মাঠ এলাকায় তার দুইতলা একটি বাড়ি রয়েছে। তিনি নারীদের যৌন হয়রানি করার উদ্দেশ্যে ভিক্ষুক সাজেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

ভুক্তভোগী এক নারী বলেন, অভিনব কায়দায় বৃদ্ধ ভিক্ষাবৃত্তির আড়ালে যৌন হয়রানির কৌশল সাইফুল ইসলাম দুলাল নামের এক যুবকের দৃষ্টিগোচর হয়। এরপর প্রায় ৮ মিনিটের একটি ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে পোস্ট দেন তিনি। রবিবার সন্ধ্যার দিকে ওই ভিডিওচিত্র পোস্ট দিলে মুহূর্তের মধ্যে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। এ নিয়ে ওই বৃদ্ধকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানিয়ে অনেকেই কমেন্ট করতে থাকেন।

ভিডিওতে দেখা যায়, সাহেব বাজার এলাকায় ওই বৃদ্ধ কৌশলে স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ সব বয়সী নারীদের যৌন হয়রানি করছেন। না দেখার বাহানা করে হঠাৎই নারীদের শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিচ্ছেন। ভিডিও ক্লিপের স্ট্যাটাসে সাইফুল ইসলাম দুলাল লিখেছেন, ‘রবিবার দুপুর আনুমানিক পৌনে দুইটার দিকে রাজশাহীর সাহেববাজার এলাকায় এই বৃদ্ধ লোকটিকে আমি লক্ষ্য করি। লোকটি সাহায্যের জন্য মূলত মেয়ে/নারীদের কাছে যায় এবং তাদের শরীরে স্পর্শ করে এমনভাবে যেন সে অজ্ঞাতসারে বা ভুল করে করে ফেলেছে। সন্দেহ হওয়ায় তার পিছু নিই এবং একই জঘন্য কাজ সবার সঙ্গে করছে দেখা যায়।

লোকটি বয়স্ক, না বুঝে করেছে ভেবে অনেকেই এড়িয়ে যাচ্ছে। কিন্তু সজ্ঞানে এবং কুৎসিত লক্ষ্য নিয়েই এই কাজ করছে তা সুস্পষ্ট। তার আসল উদ্দেশ্য জানার জন্যই আমি মুঠোফোনে ভিডিও ধারণ করতে থাকি। কিন্তু কোনো রকম ব্যবস্থা গ্রহণের পূর্বেই ভিড়ের মধ্যে তাকে হারিয়ে ফেলি।’ এই লোক এবং এরকম আরও যারা আছে তাদের হতে সকলকে সাবধান হতে হবে এবং তাদের যত দ্রুত সম্ভব প্রশাসনের (আইনের) আওতায় আনার অনুরোধ জানাই। তা না হলে রোজই রাস্তায় নারীরা হেনস্তার শিকার হতে থাকবে।’

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিও সম্পর্কে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, ভিডিও দেখে ওই বৃদ্ধকে শনাক্ত ও গ্রেফতার করা হয়েছে। যারা তার যৌন হয়রানীর শিকার হয়েছেন তাদের মধ্যে থেকে একজন মামলাও করেছেন। ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

ওসি আরও বলেন, প্রাথমিক তথ্য পাওয়া গেছে সে স্বচ্ছল। তবে বৃদ্ধ। হাঁটতে চলতে অন্যকে ধরেন। মানসিক প্রতিবন্ধীর কোনো তথ্য মেলেনি। স্ত্রীসহ দুই সন্তান রয়েছে। শাহ মখদুম কলেজের পেছনে একটি বাসায় ভাড়া থাকেন পরিবার নিয়ে।

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *