352518

এবার হরতালের ডাক দিলেন কাদের মির্জা

নিউজ ডেস্ক।। একের পর এক বিস্ফোরক মন্তব্য করে আলোচনায় এসেছেন নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের বসুরহাট পৌরসভার মেয়র ও আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা। এবার তিনি শুধু কথায় আটকে নেই, ডেকেছেন হরতালও। আগামীকাল রোববার কোম্পানীগঞ্জে আধাবেলা হরতাল ডেকেছেন তিনি।

নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীকে বহিষ্কারের দাবিতে এ হরতাল ডাকা হয়েছে। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বসুরহাট পৌরসভার বঙ্গবন্ধু চত্ত্বরে আবদুল কাদের মির্জা এ ঘোষণা দেন। একই দাবিতে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে করে আসা অবস্থান কর্মসূচিও তিনি এ সময় স্থগিত করেন।

আবদুল কাদের মির্জা বলেন, ‘আগামীকাল থেকে কঠোর আন্দোলনের দিকে আগাব। আপনারা আগামীকাল হরতাল ২টা পর্যন্ত, ৬টা থেকে ২টা। আমরা সকাল-সন্ধ্যা করতাম, কিন্তু বাজারের দিন, বসুরহাট ব্যবসায়ীদের দিকে তাকিয়ে আমরা হরতাল দেব ৬টা থেকে ২টা পর্যন্ত।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান, সাধারণ সম্পাদক নুরনবী চৌধুরী প্রমুখ।

এর আগে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে কটূক্তি করার প্রতিবাদে বসুরহাট রূপালী চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে ঘোষণা দিয়ে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন আবদুল কাদের মির্জা।

আবদুল কাদের মির্জা বিক্ষোভ সমাবেশে বলেন, ‘নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরীকে বহিষ্কার ও জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটি ভেঙে দিতে হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত আমাদের দাবি মেনে নেওয়া না হবে; ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের কর্মসূচি চলবে।’

তার আগে গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টা ৩২ মিনিটে একই আইডি থেকে লাইভে এসে একরামুল করিম চৌধুরী বলেন, ‘আমি কথা বললে তো আর মির্জা কাদেরের বিরুদ্ধে বলব না, আমি কথা বলব ওবায়দুল কাদেরকে (বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী)। একটা রাজাকার ফ্যামিলির লোক এ পর্যায়ে আসছে, তার ভাইকে শাসন করতে পারে না। নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা না হলে এগুলো নিয়ে আমি আগামী কয়েক দিনের মধ্যে শুরু করবো।’

পরে একরামুল করিম চৌধুরী তার ফেসবুক আইডি থেকে লাইভ ভিডিওটি সরিয়ে নেন। এর আগেই কয়েক মিনিটের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়।

প্রসঙ্গত, গত ১৬ জানুয়ারি নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা টেন্ডারবাজি, অপরাজনীতি, মাদক, দূর্নীতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে অভিযোগ এনে সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীসহ নিজ দলের একাধিক সংসদ সদস্য, মন্ত্রী, কেন্দ্রীয় নেতার সমালোচনা করে আলোচনার ঝড় তোলেন। উৎস: দৈনিক আমাদের সময়।

 

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *