350091

পরপুরুষ দিয়ে দিব্যাকে ধর্ষণ করাতে চেয়েছিলেন স্বামী!

ভারতের ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী দিব্যা ভটনাগরের গত সোমবার করোনায় মৃত্যু হয়েছে। এই নায়িকার অকাল মৃত্যুতে তোলপাড় হয়েছে বলিউড। মাত্র ৩৪ বছরে সবাইকে বিদায় জানিয়েছেন দিব্যা, সেটা নিঃসন্দেহেই মর্মান্তিক ব্যাপার। পাশাপাশি, তাঁর মৃত্যুর কারণ যে করোনা, সেটাও আতঙ্কের আবহ তৈরি করেছে পরিচিত এবং ভক্তদের মধ্যে।

প্রিয় বন্ধুর এই অকালপ্রয়াণে ভেঙে পড়েছিলেন ছোট পর্দার আরেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী দেবলীনা ভট্টাচার্য। বন্ধুর করোনার কারণে মৃত্যুতে তিনি শোক প্রকাশ তো করেছেনই সেই সঙ্গে অভিনেত্রী আরো একটি বিষয় নিয়ে মুখ খোলেন। প্রিয় বন্ধুর জন্য সুবিচারের দাবিতে সরব হয়েছেন দেবলীনা। ইনস্টাগ্রামে দেয়া এক পোস্টে বলছেন যে, দিব্যা তাঁর স্বামীর কাছে নিয়মিত পারিবারিক নির্যাতনের শিকার হতেন! দেবলীনার দাবি- গগন গাবরু দিব্যার ভালোমানুষির সুযোগ নিয়েছিলেন। ভালোবাসার অভিনয় করে তিনি দিব্যাকে বিয়েতে রাজি করান। দিব্যাও সেই ফাঁদে পা রাখেন, পরিবারের অমতে বিয়ে করেন গগনকে।

এর পরেই ধীরে ধীরে গগনের স্বরূপ প্রকাশ পায়! তিনি নিয়মিত দিব্যাকে মারধর করতেন, তাঁর সব গয়নাও কেড়ে নিয়েছিলেন! স্বামীর এই অত্যাচার দিব্যাকে মানসিক দিক থেকে সম্পূর্ণ ভেঙে দিয়েছিল বলে দাবি করেছেন দেবলীনা। দেবলীনা আরো জানিয়েছেন যে, গগনের ক্রিমিনাল রেকর্ডও রয়েছে! সিমলা পুলিশ স্টেশনে গগনের নামে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে, ছয় মাস জেলও খাটতে হয়েছিল তাঁকে। এখনো সেই মামলা চললছে, তার নিষ্পত্তি হয়নি।

এ কথা জানাজানি হওয়ার পরই শোরগোল শুরু হয়। দিব্যার পরিবারও গগনের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার দাবি জানান। এর পর মুখ খোলেন দিব্যার স্বামী গগন।সম্প্রতি তিনি তাঁর ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন, সেখানে গগন বলেছেন, “লজ্জা হওয়া উচিত দেবলীনার। কোথায় ছিলেন ইনি এতদিন? হঠাৎ দিদি বোন বন্ধু বলে কান্নাকাটি শুরু করলেন? দিব্যা আমার স্ত্রী। সে নেই আমি এটাই এখনো বিশ্বাস করে উঠতে পারিনি। আর আপনি ব্যবসা শুরু করলেন দিব্যাকে নিয়ে? নিজের প্রচারের জন্য দিব্যার মৃত্যুকে কাজে লাগাচ্ছেন। আমাদের মধ্যে কেমন সম্পর্ক ছিল, তা আর কেউ জানলো না, আপনি জেনে বসে আছেন? লজ্জা হওয়া উচিত।”

এরপর ফের একটি অডিও ক্লিপিংস শেয়ার করেছেন দেবলীনা। সেখানে দিব্যা বলছেন, “বে্লট দিয়ে মারে আমাকে। রোজ ভয় দেখায়। শারীরিক নির্যাতন করে। বলে রেপ কি হয় জানো, অন্য ছেলেকে দিয়ে রেপ করালে বুঝবে। আমার স্বামী এসব বলছে আমায়। কথায় কথায় বলে আমাকে খুন করে জেলে যাবে ও। কিছু যদি কাউকে বলি তাহলে আমার ভাই ও মাকেও মেরে ফেলবে। অনেকে বারণ করেছিল গগণকে বিয়ে না করতে। তাও করেছিলাম আমি। এটাই সব থেকে বড় ভুল। এমনকি বিয়ের সময়েও আমায় জোর করে ও।” আর এই কথা বলতে বলতে কেঁদে ফেলেন দিব্যা। এই ভিডিও শেয়ার করে দেবলীনা লিখেছেন, এর পরও গগন কি করে কথা বলছে? ক্রিমিনাল খোলা ঘুরে বেড়াচ্ছে। ওর শাস্তি চাই। বলিউডের সকলকে পাশেও চান তিনি।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *