349965

নতুন আইনের লাভ দেখালেন মোদি, বিশ্বাস করেনি কৃষকরা

ভারতে ফসল উৎপাদন ও বিপনে ব্যাপারে নতুন তিন আইনের বিরুদ্ধে হাজার হাজার ভারতীয়্ কৃষক আন্দোলন করছে। সে মুহূর্তে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেদ্র মোদি কৃষকদের নিশ্চিয়তা দিয়ে বলেছেন কৃষি খাতে আইন সংশোধন করা হয়েছে তাদের সাহয্য করার জন্য।

শনিবার নয়া দিল্লিতে ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজের বার্ষিক সভায় নরেন্দ্র মোদি বলেন, সংশোধিত আইন কৃষিতে বিনিয়োগ বৃদ্ধি করবে এবং এটা কৃষকদের জন্য লাভজনক হবে।

তিনি আরো বলেন, সব সরকারি সংস্কারের মূল লক্ষ্য হলো কৃষকদের সমৃদ্ধি। বেসরকারি কম্পানিগুলো দেশের কৃষি খাতের উন্নতিতে সাহায্য করবে।

কিন্তু আন্দোলনরত কৃষকরা বলছেন, যে নতুন আইন ভারত সরকারের নিয়ন্ত্রিত বাজার ব্যাবস্থাকে বাতিল করবে এবং কৃষকদের কাছ থেকে সরকার যে নিশ্চিত(ন্যায্য) মূল্যে গম এবং চাল কিনত তা বন্ধ হয়ে যাবে। এভাবে তাদেরকে বেসরকারি ক্রেতাদের দয়ার উপর ছেড়ে দেয়া হবে।

নতুন আইনের বিরোধীতা করছেন ভারতের ৩০টি কৃষক ইউনিয়ন। তারা বলছে, নতুন আইন তাদের সাথে আলোচনা না করেই চালু করা হয়েছে। এ আইনের মাধ্যমে তাদের আয় কমবে এবং ন্যায্য মূল্যের নিশ্চয়তাও থাকবে না।

অচলাবস্থা নিরসনে কৃষক ইউনিয়নের নেতাদের সাথে আলোচনায় বসেছিল সরকার। তবে এতে কোনো অগ্রগতি হয়নি। কৃষকরা তাদের অবস্থার পরিবর্তনের জন্য নতুন আইন চাচ্ছেন।

ভারতীয় কৃষাণ ইউনিয়নের সভাপতি বলবীর সিং রাজেওয়াল বলেন, ‘তারা শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের চিন্তা করছেন। সরকার অবশ্যই তাদের দাবিসমূহ মেনে নিবে যদি তারা আমাদের আন্দোলন বন্ধ করতে চায়।

এই প্রসঙ্গে ভারতের বাণিজমন্ত্রী পিযুষ গোয়াল বলেছেন, সরকার কৃষকদের আয় দ্বিগুন করতে এবং তাদের সমৃদ্ধি আনায়নে প্রতিজ্ঞবদ্ধ। কৃষকদের এ সহিংস আন্দোলন বামপন্থী ও মাওবাদীদের দ্বারা প্ররোচিত।

এদিকে মোদির সর্বশেষ আশ্বাস সত্ত্বেও, হাজার হাজার কৃষক নতুন আইন বাতিল করার জন্য প্রতিবেশী রাজ্যগুলি থেকে নয়াদিল্লিতে প্রবেশের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

সূত্র : আলজাজিরা

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *