346486

গ’র্ভপাত করছিলেন আয়া, হাতেনাতে ধরা

কেরানীগঞ্জের জিনজিরা ইউনিয়নের বন্দ ডাকপাড়া এলাকার পপুলার গ্যাস্টোলিভার অ্যান্ড জেনারেল হাসপাতালের আয়া বনি (৩৫)। দীর্ঘদিন ধরে হাসপাতালে নিজের কাজের পাশাপাশি তিনি করতেন গুরুত্বপূর্ণ অ’পারেশন। আজ সোমবার এক নারীর গ’র্ভপাত অ’পারেশন (ডিএনসি) করানোর সময় তাকে হাতেনাতে গ্রে’প্তার করেছেন ভ্রাম্যমাণ আ’দালত।

পপুলার গ্যাস্টোলিভার অ্যান্ড জেনারেল হাসপাতালের আয়া বনির সঙ্গে গ্রে’প্তার করা হয় প্রতিষ্ঠানটির মালিক আব্দুল গফুরকে (৫৫)। পরে আয়া বনিকে এক বছরের জেল ও গফুরকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কা’রাদ’ণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আ’দালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অমিত দেবনাথ। পাশাপাশি ওই হাসপাতালটিকে সিলগালাও করে দেন তিনি।

আজ সোমবার দুপুর আড়াইটায় পরিচালিত অ’ভিযানের নেতৃত্ব দেন ঢাকা জেলা সিভিল সার্জন ডা. মঈনুল আহসান। তিনি জানান, হাসপাতাল পরিচালনা ক্ষেত্রে যে সকল কাগজপত্র সরকারি অফিসে জমা দেওয়া প্রয়োজন প্রতিষ্ঠানটির মালিক আব্দুল গফুর তা জমা দেননি। হাসপাতালের লাইসেন্স নেই। নেই কোনো র’ক্ত সঞ্চালন ট্রান্সমিশন যন্ত্র। এ ছাড়া গত দেড় বছর ধরে হাসপাতালটির আয়াকে দিয়ে বহু অ’পারেশরা করানো হয়েছে।

ভ্রাম্যমাণ আ’দালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অমিত দেবনাথ বলেন, ‘নন-টেকনিক্যাল একজন আয়াকে ডাক্তার সাজিয়ে আগে বহু অ’পারেশন করানো হয়েছিল। আজও তিনি এক রোগীর গ’র্ভপাতের (ডিএনসি) অ’পারেশন করছিলেন। আমরা তাকে হাতেনাতে ধরেছি।’

অমিত আরও বলেন, ‘হাসপাতালে অ’পারেশন একজন চিকিৎসকের করার কথা। এভাবে আয়াকে দিয়ে অ’পারেশন করালে যেকোনো সময় প্রাণ হানিরঘটনা ঘটতে পারে। আমরা ভোক্তা অধিকার আইনে তাদের শা’স্তি দিয়েছি। আমাদের এমন অ’ভিযান চলমান থাকবে।’

সূত্রঃ দৈনিক আমাদের সময়

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *