346303

এখনই হোয়াইট হাউসে উঠা হচ্ছে না জো বাইডেনের

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিনে জয়ী হলেও এখনই ১৬০০ পেনসিলভানিয়া অ্যাভিনিউয়ে অবস্থিত হোয়াইট হাউসে উঠতে পারছেন না জো বাইডেন। তার আগে কিছু কাজ করতে হবে তাকে। এই প্রক্রিয়া সাধারণত নির্ঝঞ্ঝাট হয়। তবে এবার কিছু জটিলতা থাকতে পারে যেহেতু এ নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতে মামলা হতে পারে। খবর বিবিসির।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে লেখা আছে- প্রেসিডেন্টের নতুন মেয়াদ শুরু হবে জানুয়ারি মাসের ২০ তারিখে, দুপুর ১২টায়। ক্ষমতাগ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় রাজধানী ওয়াশিংটনে জাঁকজমকপূর্ণ একটি ‘অভিষেক’ অনুষ্ঠান দিয়ে। সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রেসিডেন্ট এবং ভাইস প্রেসিডেন্টকে শপথ পাঠ করান।

অর্থাৎ জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস ২০২১ সালের ২০ জানুয়ারি শপথগ্রহণ করে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। এ সময়সূচিতে ব্যতিক্রম হয়, যদি ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট দায়িত্বে থাকাকালে পদত্যাগ করেন বা মারা যান। তখন ভাইস প্রেসিডেন্ট সঙ্গে সঙ্গে প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন।

নভেম্বরে নির্বাচনের চূড়ান্ত ফল ঘোষণা এবং ২০ জানুয়ারি নতুন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণের মাঝের সময়টি ‘ট্রান্সিশন’ বলা হয়। নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট একটি ‘ট্রান্সিশন টিম’ গঠন করেন, যার কাজ হলো ক্ষমতাগ্রহণ করার জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা। বাইডেন টিম ইতিমধ্যে একটি ট্রান্সিশন ওয়েবসাইট চালু করেছে।

তারা জো বাইডেনের মন্ত্রিসভার জন্য সম্ভাব্য সদস্য চিহ্নিত করবেন, নতুন সরকারের নীতি কী হবে, কোন বিষয়ে তারা অগ্রাধিকার দেবে, সেগুলো আলোচনা করবেন এবং দেশ চালানোর জন্য প্রস্তুতি নেবেন।

এই টিমের সদস্যরা বিভিন্ন ফেডারেল দফতরে গিয়ে তাদের কাজ সম্পর্কে বিস্তারিত শুনবেন। যেমন কোন কাজের ডেডলাইন কী, কত বাজেট আছে এবং মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব কর্মচারীরা কী কাজ করেন ইত্যাদি।

বিভিন্ন অফিসে যারা বাইডেন প্রশাসনের হয়ে নতুন কাজ করতে আসবেন, ট্রান্সিশন টিম এসব তথ্য তাদের জন্য সংগ্রহ করেন এবং ২০ জানুয়ারির পরও সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত থাকবেন।

চার বছর আগে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তার উত্তরসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করেন। কিন্তু হোয়াইট হাউসের ওভাল অফিসে অনুষ্ঠিত এই সাক্ষাতের ছবি দেখে বোঝা গিয়েছিল দুজনের মাঝে উষ্ণতার কত অভাব ছিল এবং যা এখনও আছে।

জো বাইডেন গত কয়েক মাস ধরে তার ট্রান্সিশন টিম গঠন করেছেন, তা পরিচালনা করার জন্য অর্থ সংগ্রহ করেছেন এবং গত সপ্তাহে তিনি একটি ওয়েবসাইট চালু করলেন।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *