346056

ভারতের লিগে খেলতে যাচ্ছেন বাংলাদেশের জামাল ভূঁইয়া

শুধু কলকাতা মোহামেডান নয়, ভারতের আরও বেশ কয়েকটি ক্লাব থেকে ডাক এসেছিল বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার কাছে। ক্লাবের লক্ষ্যের কথা শুনে অর্ধেক মৌসুম কলকাতা মোহামেডানেই খেলার ব্যাপারে রাজি হয়েছেন জে বি সিক্স। আর বাকি মৌসুম সাইফ স্পোর্টিংয়ের হয়ে খেলবেন জামাল।

এদিকে, জামালের ভারতের লিগে খেলাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন প্রধান কোচ জেমি ডে। তার মতে, জামাল ভারতে খেললে অন্যদের মাঝেও ভাল করার স্পৃহা তৈরী হবে।

বাংলাদেশ ফুটবলের পোস্টার বয়। দেশ ছাপিয়ে এখন প্রতিনিধিত্ব করবেন বিদেশের মাটিতে। জামাল ভূঁইয়ার ডাক এসেছে সতীর্থ দেশ ভারত থেকে। কলকাতা মোহামেডানের জার্সি গায়ে চাপাবেন আসছে মৌসুমে।

বেশ কিছুদিন ধরেই গুঞ্জণ চলছিল গণমাধ্যমে। কোন কিছু নিশ্চিত না হওয়ায় জামাল নিজেই জানিয়েছিলেন, হচ্ছে না এমন কিছু। বর্তমানে সাইফ স্পোর্টিংয়ের সাথে চুক্তিবদ্ধ জামাল ভূঁইয়া। তাকে আগামী মৌসুমেও রাখতে আগ্রহী ক্লাবটি। তবে কলকাতা মোহামেডান এবং সাইফের সমঝোতায়, আসছে মৌসুমের অর্ধেক সময় কলকাতায় খেলবেন জামাল।

এ বিষয়ে জামাল ভূঁইয়া বলেন, আমি এখন সাইফ স্পোর্টিংয়ে খেলছি। যদিও আমার চুক্তি তাদের সাথে শেষ হয়েছে। তবে সাইফ আমাকে রাখতে চাচ্ছে। বর্তমান ক্লাবের সাথে কলকাতা সমঝোতায় এসেছে। তারা অর্ধেক মৌসুম কলকাতায় খেলার অনুমতি দিয়েছে। এপ্রিলের পর থেকে আবার বাংলাদেশে খেলবো। যেহেতু আগে বিষয়গুলো নিশ্চিত হয়নি তাই এ ব্যাপারে কিছু জানাইনি।

শুধু কলকাতা মোহামেডান নয়। তার কাছে ডাক এসেছিল ভারতের আরো বেশ কয়েকটি ক্লাব থেকে। তবে মোহামেডানের লক্ষ্যের কথা বিবেচনায় নিয়ে সম্মত হয়েছেন ঐতিহ্যবাহী এই ক্লাবে খেলার।

জামাল বলেন, দেখুন আমার কাছে ভারতের বেশ কয়েকটি ক্লাব থেকে ডাক এসেছে। আমি মোহামেডানের ম্যানেজার ওয়াসিম ভাইকে জিজ্ঞেস করলাম, তারা লিগে কোন পর্যায়ে থাকতে চায়। চ্যাম্পিয়নশিপ, মধ্যম সারির দল নাকি তলানির দল। তিনি আমাকে বললেন তারা চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইট দিবে। আমার কাছে তার কথা ভাল লেগেছে। তাই মোহামেডানে খেলতে রাজি হয়েছি।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের হেড কোচ অবশ্য এটিকে দেখছেন ইতিবাচক হিসেবে। বিদেশি লিগে জামাল খেললে প্রতিদ্বন্দ্বিতা তৈরী হবে দলের মধ্যে। উপকৃত হবে বাংলাদেশের ফুটবলও।

জেমি ডে বলেন, দেখুন জামালের ভারতে খেলাটা বাংলাদেশের জন্য ইতিবাচক দিক। ও বিদেশি লিগে খেললে দলের ফুটবলারদের মাঝে ভালো করার স্পৃহা তৈরী হবে। ওরাও বিদেশে খেলতে চাইবে। সেজন্যে নিজেদের সেরা ফুটবল খেলবে। তাছাড়া জামাল ওখানে খেলে আসলে তার থেকে অভিজ্ঞতা নিতে পারবে সতীর্থরা। তবে তার উপর চ্যালেঞ্জ থাকবে ভালো খেলার। তাহলেই অন্যদের জন্য সুযোগ তৈরী হতে পারে।

জামালই প্রথম ভারতের লিগে খেলতে যাচ্ছেননা। এর আগে শেখ আসলাম, কিং ব্যাক মুনেম মুন্নাসহ বেশ কয়েকজন খেলেছেন ভারতীয় লিগে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *