299494

স্কুলছাত্র ভাগ্নের সঙ্গে মামীর পরকীয়া, জুতার মালা পরিয়ে ঘোরানো হলো গ্রাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- পরকীয়া সম্পর্কের জেরে স্কুলছাত্র এবং দুই সন্তানের জননীকে শারীরিক নির্যাতনের পর গলায় জুতার মালা পরিয়ে পুরো গ্রাম ঘোরানো হয়েছে। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হরিয়ানার কারনাল জেলার দানিয়ালপুর গ্রামে। এ ঘটনার ভিডিও ধারণ করে সেই ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করার পরই তা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। পরে বিষয়টি পুলিশের নজরে আসলে ওই যুগলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, সালিশি বৈঠকে দোষী সাব্যস্তের পর দ্বাদশ শ্রেণির ওই ছাত্র এবং দুই সন্তানের জননী ওই মহিলাকে বেদম মারধর এবং তারপর জুতোর মালা পরিয়ে সারা গ্রাম ঘুরিয়ে গ্রামের বাইরে বের করে দেয় গ্রামবাসীদের একাংশ। জানা যায়, ওই মহিলা বাল্মিকী সম্প্রদায়ের এবং কিশোরের বাঞ্জারা সম্প্রদায়ভুক্ত। মহিলার স্বামী রূপান্তরকামী। স্থানীয় গ্রামগুলিতে রামলীলা অনুষ্ঠানে নাচেন। সেকারণেই তাঁর ভাগ্নের সঙ্গে ভালোবাসার সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন ওই বধূ।

কিশোরের বাবার অভিযোগ, বুধবার তাঁরা ওই গ্রামের বাস স্টপে ছেলেকে নামিয়ে চলে যান। সে গ্রামে ঢুকতেই সালিশি বৈঠক ডাকা। সেখানে তাঁর ছেলে এবং ওই মহিলাকে দোষী সাবস্ত্য করার পর মারধর করা হয়। সালিশি প্রধান জুতোর মালা পরিয়ে গ্রাম ঘোরানোর বিপক্ষে থাকলেও বাঞ্জারা সম্প্রদায়ের মানুষরা তাতে সায় দেয়নি। ভাগ্নে ও মামীকে শারীরিক নির্যাতনের পর গলায় জুতার মালা পরিয়ে পুরো গ্রাম ঘোরানো হয়।

কিশোরের মামার অভিযোগ, বুধবার তাঁরা ভাগ্নেকে রেখে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর অন্য কারও মোবাইল থেকে ফোন করে কিশোর তাঁদের বলে, তাকে মারধর করা হয়েছে। তার শিরদাঁড়ায় যন্ত্রণা হচ্ছে। তারপরই তাঁরা ঘটনাস্থলে গিয়ে বাকি ঘটনার ভিডিও তুলে প্রশাসনের নজরে আনতে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করেন।

কারনাল জেলার ডিএসপি রাজীব কুমার জানালেন, তাদের কিশোরের চিকিত্‍সা চলছে। পুলিশ এবং প্রশাসন তাকে যাবতীয় সাহায্য করবে। কোনও সমস্যা হলে পুলিশের কাছে আসার পরামর্শ দিয়ে রাজীবের আশ্বাস, যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *