298410

‘খেপ’ খেলে ৪০০ টাকা করে পেতামঃ সাইফউদ্দিন

বিশ্বকাপে ব্যাটে বলে দারুণ খেলেছেন পেস অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। ১৩ উইকেট সহ ব্যাট হাতে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ স্কোর ৫৯ রান করেছেন।ফেনীর ২২ বছর বয়সী এই তরুণ ক্রিকেটারের ক্রিকেটে আসার গল্পটা খুব একটা সহজ ছিলেন না।সাইফউদ্দিনের বাবা আব্দুল খালেক পুলিশে চাকরি করেন। বাবা চাইতেন তার ছেলে পড়াশোনা করে ভালো চাকরি করুক।কিন্তু সাইফউদ্দিনের ঝোঁক ছিলো ক্রিকেটের দিকে। স্বপ্ন দেখতেন একদিন জাতীয় দলের হয়ে খেলবেন।

কলেজ ক্রিকেটে অনূর্ধ্ব-১৬ বিভাগে চট্টগ্রামের হয়ে ৫৪৬ রান ও ২৪টি উইকেট নিয়ে জাতীয় ক্রিকেটে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন।তারপর আর ফিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।সেই থেকে ছুটেই চলেছেন সামনের দিকে।বিশ্বকাপ মিশন শেষে দেশে ফিরে ভারতের প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সাইফউদ্দিন বলেন, খেপ ‘ক্রিকেট’ খেলে ম্যাচ প্রতি চারশো টাকা করে পেতাম। একশো টাকা হাত খরচের জন্য রেখে তিনশো টাকা জমিয়ে রাখতাম।

সাইফউদ্দিন আরও বলেন, খেপ খেলে যে টাকা পেতাম সেই টাকা দিয়েই ক্রিকেটের সরঞ্জাম কিনে আনতাম। আর এ ধরনের ক্রিকেট শুধু অর্থ সংগ্রহের রাস্তাই দেখায়নি, সঙ্গে গড়ে তুলেছে লড়াকু মনোভাবও। যাদের হয়ে ক্রিকেট খেলতাম, তারা টাকা দিতো ঠিকই, কিন্তু পারফর্ম করতে না পারলে অনেক কটূকথা শুনতে হত।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *