fbpx
Connect with us

জাতীয়

ইসিকে ধন্যবাদ ফখরুলের

Published

on

বিএনপির প্রার্থীদের বৈধ ঘোষণার কারণে নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ জানিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘রিটার্নিং কর্মকর্তারা যে অসংখ্য প্রার্থীকে অবৈধ ঘোষণা করেছিলেন, আজকে নির্বাচন কমিশনের শুনানির মধ্য দিয়ে তাদের অনেকেই প্রার্থী হওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছেন। আমি নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ জানাই, তারা ন্যায়বিচার করেছে।’বৃহস্পতিবার বিকেলে বিএনপির চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, নির্বাচন কমিশন যেসব কর্মকর্তাকে রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব দিয়েছিলেন, সেখানে অনেক জায়গায় প্রার্থীরা ন্যায়বিচার পাননি। বিএনপি বরাবরই যে কথা বলে আসছে, সেটি হলো সরকারি কর্মকর্তারা যে সরকার দায়িত্বে থাকে, তাঁদের কথা বেশির ভাগ সময় মেনে চলতে হয়। সে কারণে অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় ন্যায়বিচার করা সম্ভব হয় না।

ফখরুল ইসলাম বলেন, বিএনপির অনেক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ হওয়ার ঘোষণা, এটা একটি বিজয়। বিএনপির আন্দোলনে জনগণের বিজয় যে আজকে দলের প্রার্থীরা বৈধ হয়ে এসেছেন এবং তাঁরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। তিনি বলেন, ‘আমি এটাও আশা করি, ন্যায়বিচার যদি প্রতিষ্ঠিত হয়, তাহলে দেশনেত্রী খালেদা জিয়াও নির্বাচনে বৈধ প্রার্থী হিসেবে ঘোষিত হবেন, বিবেচিত হবেন।’সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপির মহাসচিব ফখরুল ইসলাম বলেন, আজ রাত আটটার পর দলের চূড়ান্ত প্রার্থীদের কিছু আংশিক তালিকা প্রকাশ করা যাবে।

ফখরুল বলেন, আমরা আশা করছি যে আজ রাত ৮টার পরে আংশিক তালিকা দিতে পারবো। তিনি আরো বলেন, আজকে সরকার এতো ভীত সন্ত্রস্ত্র যে, ভীত বলেই তারা রাষ্ট্র যন্ত্রকে ব্যবহার করছে এই নির্বাচনে। যেখানে সাংবিধানিকভাবে নিরপেক্ষ হতে হবে, সেখানে তারা বেআইনিভাবে হস্তক্ষেপ করছে। উদ্দেশ্যে নির্বাচনকে প্রভাবিত করা।ফখরুল আরো বলেন, সারাদেশে গ্রেপ্তার চলছেই, কোথাও কোথাও বাড়ছে। বিএনপি কোথাও কোথাও সাংগঠনিক ঘরোয়া সভা করছে সেখানেও বাধা দিচ্ছে। আবারো বলছি, নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি করুন, দলগুলোর যে অধিকার আছে, তা প্রয়োগ করার সুযোগ দিন, গ্রেপ্তার বন্ধ করুন।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনপ্রিয়