179875

মাটি খুঁড়তেই বেরিয়ে এলো সিন্দুক ভর্তি ‘গুপ্তধন’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ফের গুপ্তধন সন্ধান মেলার খবরে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গ। এবারের ঘটনা নদীয়ায়। হাওড়ার ডোমজুর থেকে এমনই গুপ্তধনের সন্ধান মেলার খবর চাউর হয়েছিল। কিন্তু শেষে তা বিপ্লবী রাসবিহারী বসুর দেশ ছাড়ার ঐতিহাসিক কাহিনীতে রূপ নেয়।

এবারে তবু মাটি খুঁড়ে মিললো লোহার সিন্দুক। লোহার সিন্দুক মানেই যেন তাতে লুকিয়ে থাকে গুপ্তধন। এটাই মানুষের সাধারণ ধারণা হয়ে গিয়েছে। সেই ধারনা থেকেই ফের গুপ্তধনের খবর চাউর হয়ে গেল। নদীয়ার নামচিপাড়া এলাকা থেকে মেলে এই সিন্দুক।

বুধবার ২৪ নম্বর জাতীয় সড়ক সংলগ্ন ওই অঞ্চলে রাস্তা সারাইয়ের কাজ চলছিল। রাস্তা খুঁড়ছিল জেসিভি। রাস্তা খুঁড়তে খুড়তেই জেসিভি আটকে পড়ে। তখন কর্মীরা এসে দেখেন উঠে জেসিভি আটকে গিয়েছে আসলে একটি সিন্দুকে। সিন্দুকের মেলার খবর দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

ঘটনার লোকমুখে ছড়িয়ে যায় সিন্দুক থেকে মিলেছে গুপ্তধন। তখনই সিন্দুকে ভরা গুপ্তধন দেখতে ওই এলাকায় ভিড় জমায় মানুষ। ভিড় সামলাতে ছুটে আসে স্থানীয় স্থানার পুলিশ। তারা সিন্দুক উদ্ধার করে নিয়ে জান থানায়। বিডিওর উপস্থিতিতে খোলা হয় সিন্দুক।

সিন্দুক খুলতেই বেড়িয়ে ভরতি’হতাশা’। সিন্দুকের ভিতর থেকে মেলে বাটখারা ও ওষুধের শিশি। হাওড়ার ঘটনাও খানিক এমন ছিল। ভগ্নস্তূপ থেকে গুন্তধনের তল্লাশিতেও লেগে পড়েছিল এলাকার মানুষ। আদতে তা ঐতিহাসিক এক সুরঙ্গের খোঁজ দেয়।

সরকার পরিবারের ওই বাড়িতে বিপ্লবী রাসবিহারী বসুর যাওয়া আসা ছিল| ওই সুরঙ্গ দিয়েই নাকি ইংরেজদের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে ছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামী রাসবহারী বসু।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *