179039

বারান্দায় ছেলে আর ঘরে মায়ের লাশ

নিজ ফ্ল্যাটের সামনের বারান্দায় ছেলে ও ঘরের ভেতর মায়ের লাশ পড়ে ছিল। মায়ের গলায় ছুরির আঘাত ছিল আর ছেলের শরীর ছিল রক্তাক্ত।

আজ বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর কাকরাইলে নিজেদের ফ্ল্যাটে খুন হন তারা। ওই বাড়ির দারোয়ান পুলিশে খবর দিলে সাতটার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।
মায়ের নাম শামসুন্নাহার ও ছেলের নাম শাওন। মা গৃহিণী। আর ছেলে সম্প্রতি ‘ও’ লেভেল পরীক্ষা দিয়েছে। নিহতের স্বামী আবদুল করিম পুরান ঢাকার শ্যামবাজারের ব্যবসায়ী। তিনি আঁদা-রসুন-পেঁয়াজ আমদানিকারক।

রাজধানীর কাকরাইলের রাজমণি-ইশা খাঁ হোটেলের বিপরীত পাশে তলা গলির ৬ তলা একটি ভবনের ৫ তলায় থাকতেন তারা। ভিআইপি রোডের ৭৯/১, মায়াকানন নামের এই বাসায় ঘটনার সময় কাজের মেয়ে ছিলেন।

বাসার কাজের মেয়ে বলেন, সন্ধ্যায় তিনি ফ্ল্যাটে ঢোকেন। এ সময় শামসুন্নাহার দরজা খুলে দেন। ঘটনার সময় তিনি রান্নাঘরে ছিলেন। কেউ একজন এসে বাইরে থেকে রান্নাঘরের দরজা লাগিয়ে দেয়। এরপর তিনি ‘ম্যাডাম’ শামসুন্নাহারের বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার শুনতে পান। কাজের মেয়ে বলেন, বাসার দারোয়ান এসে রান্নাঘরের দরজা খুলে দিলে তিনি সেখান থেকে বের হন।

দারোয়ান পুলিশকে জানিয়েছেন, ওপর থেকে একজন লোক নিচে এসে বলে, ‘ওপরে যান, সেখানে মারামারি লাগছে’। তখন দারোয়ান উপরে উঠে পাঁচ তলার সিড়িতে শাওনের লাশ ও ভেতরে শামসুন্নাহারের লাশ দেখতে পান।

পুলিশের কর্মকর্তারা বলছেন, ঘটনা সম্পর্কে জানতে বাসার দারোয়ান ও কাজের মেয়েকে থানায় নেওয়া হয়েছে। পুলিশের আশা, শিগগিরই এই হত্যার পেছনে কারা তা উদ্‌ঘাটিত হবে।

সূত্র: কালের কন্ঠ

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *