178740

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ায় অভিনেত্রী মিষ্টির বিরুদ্ধে মানহানির মামলা…

অভিনেত্রী মিষ্টি জান্নাতের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান থেকে পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে ছয় মাস যাবত পলতাক এক ব্যক্তি- এমন অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রী মিষ্টি জান্নাত নিজেই। বিষয়টি গড়িয়েছে মামলা মোকদ্দমা পর্যন্ত। পরপর দুদিন এ বিষয়ে নিজ ফেসবুক অ্যাকাউন্টে স্ট্যাটাস দিয়েছেন মিষ্টি। গত ২৬ অক্টোবর ফেসবুকে এক ব্যক্তির ছবি সংযুক্ত করে তিনি লিখেছেন- ‘এই ছেলে আরাফাত চৌধুরী রাজীব। আমাদের wholesale এর প্রোডাক্ট আনা-নেওয়া করত। আমাদের পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে পালাতক ছয় মাস ধরে। টাকা চাইলে ছয় মাস ধরে ঘোরাচ্ছে। আবার আমারে থ্রেটও দিচ্ছে। এখন মোবাইল নম্বর বন্ধ করে রেখেছে। থাকে উত্তরখান এ। শশুর বাড়ি দক্ষিণখান এ। কেউ যদি ওকে চিনে থাকেন জানাবেন, তাকে ভালো পুরস্কার দেওয়া হবে। ওর নামে জিডি, চিট কেস করা হয়েছে। উকিল নোটিশ ও পাঠানো হবে। আরও অনেক স্টেপ নেয়া হবে’।

এই পোস্টের সঙ্গে মিষ্টি জান্নান সংযুক্ত করেছেন অভিযুক্তের পরিবারের ছবি এবং ফোন নম্বর। এরপর ২৭ অক্টোবর মিষ্টি জান্নার আবারও পোস্ট দিয়েছেন। লিখেছেন, ‘এই বাটপার পাঁচ লক্ষ টাকা নিয়ে পালাইছে আমাদের Wholsale এর । কাল ওর ছবি পোস্ট করায় আমারে মানুষ দিয়ে হুমকি দিচ্ছে। এসএমএস করে হুমকি দিচ্ছে। চোরের মায়ের বড় গলা। কী করা দরকার? ও আমারে হুমকি দেয়। ওর শ্বশুর এর নাম বেলায়েত হোসেন মুকুল। দক্ষিণখান এর নাকি পাওয়ারফুল লোক এই সব বলে হুমকি দিচ্ছে। মজা লাগে। টাকা নিয়ে আবার হুমকিও দেয়। কি করা দরকার?’

অবাক করার বিষয় হচ্ছে, ‘ইমন আহমেদ রাজ’ নামে এক ব্যক্তি অভিনেত্রী মিষ্টি জান্নাতের পোস্টের নিচে রাজিবের পক্ষ নিয়ে কথা বলছিলেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে প্রিয়.কম যোগাযোগ করেছিল অভিযোগকারী অভিনেত্রী মিষ্টি জান্নাতের সঙ্গে। এছাড়াও যোগাযোগ করা হয় অভিযুক্ত আরাফাত চৌধুরী রাজীবের সঙ্গে।

মিষ্টি জান্নাত বলেছেন যে- ‘তিনি রাজিবের বিরুদ্ধে দুটি থানায় মামলা করেছেন। একটি হচ্ছে ক্যান্টনমেন্ট এবং আরেকটি দক্ষিণখান থানায়। আর ‘ইমন আহমেদ রাজ’ নামের আইডির বিষয়ে মিষ্টি জান্নাত বলেছেন- এটি রাজীবেরই ফেক আইডি।

এ বিষয়ে রাজিবের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি প্রিয়.কমকে বলেন, ‘উনি (অভিনেত্রী মিষ্টি জান্নাত) ঠিকঠাক মতো পেমেন্ট দিতেন না, কেরিং চার্জও দিতেন না। আর মাল আনতে আমাকে টাকা দিয়েছেন, তবে সেটি আড়াই লাখ টাকা। ব্যবসায়িক লেনদেনের মধ্যে অনেক প্রতিবন্ধকতা থাকে। মাল আমদানি হতে সময় লাগছে। আমি উনার কাছে আরও কিছুদিন সময় চেয়েছিলাম। কিন্তু উনি হুট করে আমার এবং আমার পরিবারের ছবি এবং নম্বর সমেত ফেসবুকে এসব বলে বেড়াচ্ছেন। এতে করে বিড়ম্বনা সৃষ্টি হচ্ছে। আর তাই আমিও ক্যান্টনমেন্ট থানায় তার নামে পাল্টা মামলা করেছি। মান হানির মামলা’।

অভিনেত্রী মিষ্টি জান্নাতকে হুমকি ধামকি দেওয়ার প্রশ্নে রাজিব প্রিয়.কমকে বলেন, ‘গত বিশ দিন যাবত তার সঙ্গে আমার কোনো কথাই হয়নি। আমি কোনো হুমকি দেইনি। তবে এমন হতে পারে, তিনি যেহেতু আমার ছবির সঙ্গে আমার পরিচিত অন্যান্য ব্যক্তিদের ছবিও যুক্ত করে ফেসবুকে পোস্ট দিচ্ছেন, তারা হয়তো কিছু বলে থাকতে পারেন।’

সূত্র: প্রিয়.কম

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *