178401

আমার বিয়ে ভেঙে দিলেন, আত্মহত্যা করবো

বিয়ে বাড়িতে সাজ সাজ রব। সব আয়োজনও শেষ। বরপক্ষ আসবে। আনন্দঘন মুহূর্তের আর অল্প বাকি। কিন্তু তাতে বাধ সেধেছে আইন! কারণ, পাত্রী যে অপ্রাপ্ত বয়স্ক!

থানার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট পুলিশ পাঠিয়ে বিয়ে ভাঙলেন ঠিকই, কিন্তু বিপত্তি তো বালিকাকে নিয়ে। বিয়ে ভাঙায় কর্তব্যরত পুলিশকে বালিকা সরাসারি বলেই বসলো, ‘আপনি আমার বিয়ে ভেঙ্গে দিলেন না তাই আজ রাতে আমি আত্মহত্যা করে মরে যাব।’

এমন ঘটনা সাভারে। শুক্রবার দুপুরে সাভারের চাঁপাইন এলাকায় সামাদ মিয়ার বাড়িতে এ বাল্য বিয়ে হচ্ছিলো।

এলাকাবাসী জানায়, দুপুরে সাভারের চাঁপাইন এলাকার পান ব্যবসায়ী সামাদ মিয়ার মেয়ে স্থানীয় শাহীন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ঝরনা আক্তার রুমির সাথে (১৫) বরিশাল এলাকার জাহাঙ্গীর ইসলাম লিমনের বাল্য বিয়ে হচ্ছিলো কনের বাড়িতে।

পরে এলাকাবাসী বিষয়টি সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও ) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শেখ রাসেল হাসানকে জানালে তিনি ঘটনাস্থলে সাভার মডেল থানার এস আই মমিনুল ইসলামকে পাঠান। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাল্য বিয়ে বন্ধ করে দেন।

এঘটনায় ওই শিক্ষার্থী পুলিশকে হুমকি দেয়, ‘আপনি আমার বিয়ে ভেঙ্গে দিলেন, না! আজ রাতেই আমি আত্মহত্যা করে মরে যাব। আমার মরণের জন্য আপনারা দায়ী থাকবেন।’

এদিকে কনের বাড়িতে প্রায় ১০০ জনের জন্য রান্না করা হয়। খাবার না খেয়েই বর পক্ষের লোকজন চলে যায়। বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দেয়ায় স্থানীয়রা পুলিশের প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

এ বিষয়ে সাভার মডেল থানার (উপ-পরিদর্শক ) এস আই মমিনুল ইসলাম বলেন আমরা খবর পেয়ে বাল্য বিবাহ বন্ধ করে দিয়েছি,কনে পক্ষ যদি আবারও বাল্য বিয়ে দেয়ার জন্য উদ্যোগ নেয় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *