178018

সৌদি প্রবাসী মিজানুর সেই তরুনীর সঙ্গে দেখা করে তার কথা রাখলেন


২০ লাখ টাকা প্রদানের ঘোষণা দিয়ে বাংলাদেশে এসে সেই মেয়ের সঙ্গে দেখা করলেন সবার জনপ্রিয় মুখ বিশিষ্ট দানবীর সৌদি আরব প্রবাসী জনাব মিজানুর রহমান সুমন।

এর আগে ‘এক প্রবাসীর আকুতি! সাফাকে বাচাঁতে এগিয়ে আসুন’ এমন শিরোনামে মাস খানেক আগে সংবাদ প্রকাশের পর তা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকে এ সংবাদটি ফেসবুকে শেয়ার করে দুটি কিডনিই অকেজো সাফাকে বাচাঁতে সবাইকে এগিয়ে আসার আহব্বান জানান। সংবাদ প্রকাশের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এমন আহব্বানে সাড়াও মেলে। এ সংবাদের শেয়ার করা একটি লিঙ্কে কমেন্ট করে মেয়েটির চিকিৎসার পুরো ২০ লক্ষ টাকা দেওয়ার ঘোষণা দেন এক প্রবাসী।

তিনি মিজানুর রহমান সুমন। সৌদি প্রবাসী একজন ব্যাবসায়ী। বাড়ি জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলায়। এর আগেও তিনি অনেক অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন।

তিনি সংবাদের লিঙ্কে কমেন্ট করে জানান, ”আমি সাফার চিকিত্সার পুরো দায়িত্ব নিতে চাই এবং চিকিত্সার জন্য পুরো বিশ লক্ষ টাকাই দিব, ইনশাআল্লাহ”।

এছাড়া তিনি সাফার চিকিৎসার পুরো টাকা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর কয়েক সপ্তাহ পর মিজানুর দেশে আসেন। সেই তরুনীর সঙ্গে দেখা করেন। এবং তার হাতে তুলে দেন ২০ লাখ টাকার চেক।

উল্লেখ্য, লাকসামে স্কুল ছাত্রী সাফা’র দুটি কিডনিই অকেজো। চলছে ডায়ালাইসিস। বর্তমানে সাফা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সি ব্লকের ১৬ নম্বর বেডে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। তার পিতা সোলায়মান আলী একজন কাতার প্রবাসী। তার বাড়ি লাকসাম উপজেলার রেল ষ্টেশন চিতোসী। সাফা লাকসাম পৌরসভার আল আমিন ইন্সটিটিউটে নবম শ্রেণীতে পড়ে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *