173308

ভোলায় ছাত্রলীগ নেতার ধর্ষণে দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্কুলছাত্রী

ভোলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ মাহমুদের বিরুদ্ধে। ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের কাছে বিচারের দাবি জানিয়েছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।
শনিবার সকালে ভোলা প্রেসক্লাবেও লিখিত অভিযোগের একটি কপি দিয়েছে ধর্ষিতার পরিবার।

ধর্ষিতা ও তার পরিবার সূত্রে জানা যায়, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ মাহমুদ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ভোলার আব্দুর রব মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ওই ছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে। পরে ছাত্রীটি গর্ভবতী হয়ে পড়ে।

এবিষয়টি রিয়াজকে জানালে সে কাউকে না জানানোর জন্য বলে এবং বিয়ে করার আশ্বাস দেয়। কিন্তু বেশ কয়েকদিন ধরে সে ছাত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। বর্তমানে ছাত্রীটি দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

এবিষয়ে ভোলা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ মাহমুদের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম চৌধুরী পাপন বলেন, এ ব্যাপারে মন্তব্য করতে চাই না। সিনিয়র নেতারা আছেন, তারা বলবেন। ভোলা সদর মডেল থানার (ভারপ্রাপ্ত) ওসি মীর খায়রুল কবীর বলেন, এখন পযর্ন্ত এ ঘটনায় থানায় কোন মামলা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, এধরনের কোন ঘটনা ঘটলে এবং দলীয় নিয়ম শৃংঙ্খলা ভঙ্গের ঘটনা ঘটলে দোষিদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *