172870

‘যারা নগ্ন ছবির নিন্দা করেন তারা মোবাইলে এসব ছবি সেভ করেন’

সামনেই নতুন ছবি ‘বাদশাহো’র মুক্তি। তবে সিনেমার চেয়ে আজকাল এষা গুপ্তার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল নিয়েই চর্চা বেশি। সৌজন্যে নায়িকার পোস্ট করা একের পর এক ছবি। যাতে তার প্রোফাইলের উষ্ণতা কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছে।

নগ্ন হয়েই ক্যামেরার সামনে নানাভাবে ধরা দিয়েছেন নায়িকা। আর তাতেই বেড়েছে আলাপ-আলোচনা। কেউ প্রশংসা করেছেন, কেউ করেছেন নিন্দা। কিন্তু নায়িকার নিজের কী মত নিজের এই নগ্ন ছবির সিরিজ নিয়ে?

উত্তরটি অবশেষে দিলেন এষা। নায়িকা বলেন, ‘আমাদের দেশে সবসময় নারীকেই দোষারোপ করা হয়। মেয়ে হয়ে জন্মালে দোষ দেওয়া হয়, আবার ধর্ষণের শিকার হলেও দোষ নারীকেই দেওয়া হয়। তাই কোথাও না কোথাও জানতাম আমাকেও দোষ দেওয়া হবে। কিছু মানুষ হামেশাই চেষ্টা করে থাকে কীভাবে তারকাদের মহিমা ক্ষুন্ন করা যায়।’
ভারতের সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, যখন মডেল ছিলেন তখনও এমন শুট করেছেন বলে জানান অভিনেত্রী। তখন কোনও আপত্তির মুখেই পড়তে হয়নি তাকে।

এষার মতে, শরীরটি তার এবং ছবিগুলি রুচিসম্মতভাবে তোলা হয়েছে। শালীনতা কোথাও ভঙ্গ করা হয়নি বলেই দাবি নায়িকার। আর নিন্দার থেকে প্রশংসাই বেশি পেয়েছেন তিনি। কারণ এখনই তার শরীর সবচেয়ে ভাল শেপে রয়েছে। তাই এখনই এমন শুট করার সেরা সময় বলে জানিয়েছেন অভিনেত্রী।
নায়িকা বলেন, ‘একজন নারী সাহসী হলেই সমাজের অসুবিধাটা হয়। পুরুষতন্ত্র চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে। পুরুষরা নিন্দাও করেছেন, আবার অনেকেই ছবিগুলি মোবাইলে বা ডেস্কটপে সেভও করে নিয়েছেন। যে দেশে অজন্তা-ইলোরা, কামসূত্রের ঐতিহ্য রয়েছে, সে দেশেই আবার নারীর নগ্নতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। আমি কোনও কাঠের পুতুল নই। নিজের জোরেই ইন্ডাস্ট্রিতে জায়গা করে নিয়েছি। আমি জানি আমি কী করেছি।’
তাকে যে ভারতীয় সংস্কৃতি শেখাতে হবে না, সবশেষে এও জানিয়ে দেন এষা।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *