172798

রোনালদোর লাল কার্ড, নিষিদ্ধ হতে পারেন ১২ ম্যাচ

স্প্যানিশ লিগ শুরুর আগেই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার ম্যাচটি দারুণ উপভোগ করেছে ফুলবলপ্রেমীরা। তবে শেষ হাসিটা অবশ্য রিয়াল সমর্থকদের। যদিও জয় ছাপিয়ে এখন আলোচনায় রিয়ালের সেরা তারকা রোনালদোর লাল কার্ড। প্রথমার্ধে মাঠে ছিলেন না। ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে যখন মাঠে নামেন তখন পিকের আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে সফরকারীরা। তাই তো দর্শকদের দুয়ো ধ্বনির মধ্য দিয়ে মাঠে নামেন সিআর সেভেন। তবে জবাব দিতে বেশি সময় নেননি পর্তুগাল অধিনায়ক।

ম্যাচের ৮০তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে জোরালো শটে ন্যু ক্যাম্পকে স্তব্ধ করে দেন রোনালদো। এখানেই থেমে থাকেননি, গোলের পর জামা খুলে গর্জন করে পেশি প্রদর্শন করে হলুদ কার্ডও দেখেন তিনি। এরপর সেই অপ্রীতিকর ঘটনা। অবশ্য যে কারণে তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেওয়া হয়েছে সেটা নিয়েও বিতর্ক কম নয়।

গোল করার পরের মিনিটেই ডি-বক্সে পায়ে বল রাখতে না পেরে পড়ে গিয়েছিলেন রোনালদো। তখন ডি-বক্সে ডাইভের অভিযোগে তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখানো হয়। হলুদে হলুদে মিলে যেটা হয়ে যায় লাল কার্ড।
বিতর্কিত ওই সিদ্ধান্তে মেনে নিতে পারেননি পর্তুগিজ তারকা। বেরিয়ে যাওয়ার আগে আস্তে করে ধাক্কা মেরে বসেন রেফারিকে। অবশেষে বার্সেলোনাকে ৩-১ গোলে হারিয়ে আরেকটি শিরোপা জয়ের পথে এগিয়ে যায় রিয়াল। তবে রেফারি ম্যাচের প্রতিবেদনে ধাক্কা মারার বিষয় উল্লেখ করার এখন আলোচনা রোনালদোর সেই ধাক্কা। যার সর্বোচ্চ শাস্তি ১২ ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা। স্প্যানিশ ফেডারেশনের শৃঙ্খলতাজনিত বইয়ের ৯৬ নম্বর আর্টিকেলে আছে, রেফারিকে মৃদু আঘাত করলে ৪-১২ ম্যাচ পর্যন্ত নিষিদ্ধ করা যেতে পারে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *