172545

‘পরিবেশ রক্ষায় দক্ষিণ এশিয়ান জুডিশিয়ারিও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে

ঢাকা: রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ বলেছেন, ‘পরিবেশ রক্ষায় দক্ষিণ এশিয়ান জুডিশিয়ারিও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। স্বতন্ত্র পরিবেশ আদালত ও সাংবাধানিক প্রতিকার ব্যবস্থা ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের পরিবেশ সংরক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বিচার বিভাগ।’

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লুতে পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে দক্ষিণ এশিয়া জুডিশিয়াল কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ সব কথা জানান রাষ্ট্রপতি। সম্মেলন থেকে এমন সব প্রস্তাব বেরিয়ে আসবে যেগুলোকে পরিবেশ রক্ষায় প্রায়োগিক পদক্ষেপ নিতে সহায়তা করবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
তিনি বলেন, সংবিধানের সৃজনশীল উদ্ভাবনী ব্যাখ্যার মাধ্যমে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট পরিবেশ সংরক্ষণ ও রক্ষা বিষয়ক মামলাগুলোর অর্থপূর্ণ বিচারে প্রতিনিয়ত প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। পরিবেশ সংরক্ষণ ও পরিবেশগত ভারসাম্য নষ্টকারী কর্মকাণ্ড মোকাবেলায় বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থা খুবই সংবেদনশীল ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবেলায় বিশ্ব সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বানও জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যু মানবজাতির জন্য বিপজ্জনক হুমকি। এর ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবেলায় বিশ্ব সম্প্রদায়কে এক হয়ে কাজ করতে হবে। একই সঙ্গে তিনি জলবায়ু পরিবর্তন ঝুঁকি মোকাবেলায় প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের তাগিদ দেন।

পরিবেশ ও পৃথিবীকে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে বিশ্ব নেতাদের কিয়োটো প্রটোকল অ্যান্ড প্যারিস এগ্রিমেন্টের কথা উল্লেখ করে মো. আব্দুল হামিদ বলেন, সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়ন ও অঙ্গীকারগুলো কাজে পরিণত করার সময় এসেছে। জলবায়ু পরিবর্তন বৈশ্বিক ব্যাপার। কোনো একক দেশ কিংবা একটি অঞ্চল এককভাবে এই তীব্র সমস্যা সমাধান করতে পারবে না।
জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা জানিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশ প্যারিস চুক্তি স্বাক্ষর ও অনুসমর্থনকারী অন্যতম প্রথম দেশ। বাংলাদেশ প্রথম কোনো দেশ যেটি নিজস্ব সম্পদ দিয়ে ৪০০ মিলিয়ন ডলারের জলবায়ু পরিবর্তন ফান্ড গঠন করেছে।

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট ও এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা। এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি আবদুল ওয়াহাব মিয়া, পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব ও এডিবি’র জেনারেল কনসাল ক্রিস্টোফার স্টিফেনস।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *