তামিম ও মেজর জিয়াকে ধরিয়ে দিলে ২০ লাখ করে পুরস্কার

Zia-Tamimজঙ্গি হামলার মূল পরিকল্পনাকারী তামিম চৌধুরী ও চাকরিচ্যুত মেজর জিয়াকে ধরিয়ে দিতে ২০ লাখ টাকা করে পুরস্কার ঘোষণা করেছে পুলিশ। সম্প্রতি সংঘটিত বিভিন্ন স্থানে জঙ্গিহামলার মূল পরিকল্পনাকারীদের অন্যতম পলাতক মেজর জিয়া ও তামিম চৌধুরী।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) পুলিশ হেডকোয়ার্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন পুলিশ প্রধান এ কে এম শহিদুল হক। এদের দুজনকে গুলশানের হলি আর্টিসান, শোলাকিয়ায় হামলায় ‘মাস্টারমাইন্ড’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে পুলিশ। সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, জঙ্গিরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চাইলে তাদের আইনি সহায়তা দেয়া হবে।

মেজর জিয়া আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের শীর্ষ নেতা। আর তামিম চৌধুরী নিউ জেএমবি’র নেতা। মেজর (বহিষ্কৃত) সৈয়দ মো. জিয়াউল হক। তিনি ২০১১ সালের ডিসেম্বরে সেনা অভ্যুত্থানে প্ররোচনা চালিয়ে ব্যর্থ হন। এরপর থেকে পলাতক। তাকে সেনাবাহিনী থেকে চাকরিচ্যুত করা হয়। সূত্র জানায়, মেজর জিয়া আগে থেকেই উগ্রগোষ্ঠীর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। মুফতি জসীমুদ্দিন রাহমানী গ্রেফতার হওয়ার পর জিজ্ঞাসাবাদে বলেছেন, ধরা পড়ার আগে তিনি একাধিকবার ঢাকা ও চট্টগ্রামে মেজর জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের ধারণা, জিয়া এই জঙ্গিগোষ্ঠীর সামরিক শাখার দায়িত্ব নেওয়ার পর ২০১৫ সালে সবচেয়ে বেশি ব্লগার হত্যা ও হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসব হামলা এত বেশি নিখুঁতভাবে হয় যে ঘাতকদের শনাক্ত ও গ্রেফতার করা কঠিন হয়ে পড়েছে। কর্মকর্তাদের ধারণা, নতুন নেতৃত্ব আসার পর আনসারুল্লাহ ‘আনসার আল ইসলাম’ নাম ধারণ করেছে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *