347755

শাহরুখ থেকে অভিষেক, প্রত্যককে নিয়েই আমাকে সন্দেহ করতো সালমান : ঐশ্বরিয়া

বিনোদন ডেস্ক : বলিউড তারকা সুস্মিতা সেন ৪৫ বছরে পা দিলেন। জন্মদিন উপলক্ষে ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যম তাকে নিয়ে বিশেষ খবর ছাপিয়েছে। বর্তমানে তার চেয়ে ১৫ বছরের ছোট রোহমান শলের সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছেন সুস্মিতা সেন। রোহমানের সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে বেশ সমালোচনাও শুনতে হয়েছে।

সুস্মিতার চেয়ে বয়সে ছোট হলেও রোহমান যে প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরীকে সবসময় আগলে রাখেন তা বেশ স্পষ্ট। এমনকি সুস্মিতার দুই মেয়ে রেনে এবং আলিশার পড়াশোনা থেকে গান, আবৃত্তি, সবকিছুই নজরে রাখেন রোহমান। ফলে সুস্মিতার দুই মেয়ের সঙ্গে রোহমানের সখ্য চোখে পড়ার মতো।

যদিও সুস্মিতার সঙ্গে রোহমানের সম্পর্ক শুরুর ইতিহাসটা খুব একটা মসৃণ ছিল না বলে জানা যায়। এ প্রসঙ্গে সুস্মিতা বলেন, ”আমি কখনো কল্পনাও করিনি ছোট কারো সঙ্গে সম্পর্কে জড়াবো। শুধু তাই নয়, একজন মহিলার জীবন হতে গেলে তাকে পুরুষের সাহায্য নিতে হবে এমন ধারণায় বিশ্বাসী নই আমি।”

সালমান খান ও ঐশ্বরিয়া রাইয়ের প্রেমের কথা কে না জানে। তাদের প্রেম শুরু মূলত সঞ্জয় লীলা ভনশালীর ‘হম দিল দে চুকে সানাম’ এর সেটে থেকে। তবে সেই প্রেম দুঃস্বপ্নে পরিণত হতে খুব বেশি সময় নেয়নি। সালমান চেয়েছিলেন তাকে ঘিরেই ঐশ্বরিয়ার জীবন আবর্তিত হবে। কিন্তু সেই প্রত্যাশা পূরণ না হওয়াতেই তাল কাটে।

একবার ঐশ্বরিয়ার ছবির সেটে গিয়েই ঝামেলা শুরু করেন সালমান। এর পরেই রেগে গিয়ে ঐশ্বরিয়াকে বাদ দিয়ে রানি মুখোপাধ্যায়কে নায়িকা হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন শাহরুখ। ‘মহব্বতে’, ‘দেবদাস’ এর মতো একাধিক সফল ছবি একসঙ্গে করার পর শাহরুখের এই আকস্মিক সিদ্ধান্তে ব্যথিত হয়েছিলেন নায়িকা। তারপর থেকে সালমান বা ঐশ্বর্যা কখনও আর একসঙ্গে কাজ করেননি।

অন্যদিকে, শাহরুখের সঙ্গে সব মান অভিমানের বরফ গলিয়ে ফের পুরনো সমীকরণ গড়ে উঠেছে সালমানের। ২০১৬ সালে ঐশ্বর্যার ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিতেও একটি ক্যামিও করেন শাহরুখ। সালমানের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এক সাক্ষাৎকারে ঐশ্বর্যা বলেছিলেন, শাহরুখের সঙ্গে তাকে সন্দেহের জেরেই সেই ছবির সেটে অশান্তি করেছিলেন সালমান।

নায়িকা জানিয়েছিলেন, শাহরুখ থেকে অভিষেক, প্রায় প্রত্যককে নিয়েই তাকে সন্দেহ করতেন প্রাক্তন প্রেমিক। শুধু তাই নয়, বেশ কয়েকবার নাকি সালমান তার গায়েও হাত তুলেছিলেন। যদিও সালমান এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছিলেন। তার কথায়, তিনি আবেগপ্রবণ হয়ে নিজেকে আঘাত করলেও অন্য কাউকে কোনওদিন আঘাত করেননি।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *