309666

২৭ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে রাজধানীতে মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে ২৭ জানুয়ারি দিবাগত মধ্যরাত থেকে মোটর সাইকেল চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ৩১ জানুয়ারি সকাল ৬ টা পর্যন্ত মোটর সাইকেল চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। তবে বৈধ কার্ডধারী সাংবাদিকরা এই নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবেন।

রোববার (১২ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন থেকে জারি করা এক পরিপত্র থেকে এসব তথ্য জানা যায়। এছাড়াও এ নির্বাচন উপলক্ষে ২৯ জানুয়ারি দিবাগত মধ্যরাত ১২ টা হতে ৩০ জানুয়ারি মধ্য রাত বারোটা পর্যন্ত সকল প্রকারের বেবিট্যাক্সি /অটোরিক্সা, ট্যাক্সি ক্যাব, মাইক্রোবাস, জীপ, পিকআপ, কার, বাস, ট্রাক ও টেম্পো চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এ ছাড়াও লঞ্চ, ইঞ্জিন চালিত সকল ধরনের নৌযান ও স্পিডবোর্ড চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

ইসির উপ-সচিব মাহফুজা আক্তার স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত নির্দেশনা এরই মধ্যে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিবের কাছে পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে-ভোট উপলক্ষে ২৮ জানুয়ারি থেকে ৩১ জানুয়ারি সকাল ৬টা পর্যন্ত অর্থাৎ ৭৮ ঘণ্টা নির্বাচনী এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। এজন্য জেলা প্রশাসককে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়ার জন্য বলেছে ইসি।

ইসি সূত্র জানায়, মোটরসাইকেলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার নির্দেশনা ছাড়াও বেশকিছু যান চলাচলের ওপর বাধা-নিষেধ আরোপ করছে ইসি। এক্ষেত্রে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো এবার আর সব যান চলাচল বন্ধ থাকবে না। এমনটি নৌযানগুলো চলাচলের ওপর বাধা-নিষেধেও এবার শিথিলতা আনা হবে। পাবলিক পরিবহন চলাচলেও এবার কড়াকড়ি না রাখার পক্ষে কমিশন।

এ বিষয়ে ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখার যুগ্ম সচিব মো. ফরহাদ আহাম্মদ খান বাংলানিউজকে বলেন, রাজধানীতে সমস্যা আছে। সব যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিলে মানুষের সমস্যা হয়। তাই আগের মতো কড়াকড়ি থাকবে না। আরেকটি পত্র কয়েকদিনের মধ্যেই সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রণালয়কে পাঠানো হবে।

আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকার দুই সিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *