306147

চুরি ঠেকাতে রাত জেগে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা!

বেশ কিছুদিন ধরেই পেঁয়াজের বাজারদর সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে। এমন সময় চলনবিল অঞ্চলে উঠতে শুরু করেছে আগাম জাতের ডাটি পেঁয়াজ (গাছ পেঁয়াজ)। কিন্তু পেঁয়াজ নিয়ে নতুন করে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন এ অঞ্চলের কৃষকরা। পেঁয়াজ চুরি যাওয়ায় শঙ্কায় রাত জেগে ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন তারা।

পেঁয়াজ চাষীরা জানায়, চলনবিল এলাকার তাড়াশ, ভাঙ্গুড়া, গুরুদাসপুর ও চাটমোহর, উপজেলার চর অঞ্চলে পেঁয়াজ চাষ হয়ে থাকে। এ বছর প্রতি কেজি গাছ পেঁয়াজ ১৬০ টাকা দরে বিক্রি হওয়ায় লাভের মুখ দেখতে শুরু করেন কৃষকরা। কিন্তু নতুন করে উপদ্রব শুরু হয় পেঁয়াজ চুরির।

তাড়াশ উপজেলার নাদোসৈয়দপুর, হেমনগর, চরহামকুড়িয়া, কাঁটাবাড়ি প্রভৃতি গ্রাম ঘুরে জানা যায়, পেঁয়াজ চুরি ঠেকাতে প্রতিটা জমিতে পাহারা বসানো হয়েছে। রাতের বেলায় আলো জ্বেলে পাহারা দেওয়া হচ্ছে।

পার্শ্ববর্তী বামুনগাড়া গ্রামের পেঁয়াজ চাষী তফের আলী, নূরুল ইসলাম ও ধারাবারিষা গ্রামের কফিল উদ্দিন বলেন, ‘আমাদের জমির পেঁয়াজ রাতের বেলা বেশ কয়েকবার চুরি হয়েছে। চুরি ঠেকাতে আমরা রাত জেগে জমি পাহারা দিচ্ছি।’

নাদোসৈয়দপুর গ্রামের শমসের আলী জানান, একটু চোখের আড়াল হলেই জমি থেকে চুরি হচ্ছে পেঁয়াজ। জমির পেঁয়াজ নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন তারা।

ধামাইচ গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল মান্নান জানান, পেঁয়াজ চুরির ঘটনা এ অঞ্চলে এখন মুখে মুখে আলোচিত।

দুর্মূল্যের বাজারে শুধু পেঁয়াজ নয় , পেঁয়াজের পাতা নিয়েও মানুষের মাঝে কাড়াকাড়ি করতে দেখা গেছে। অথচ অন্যান্য বছরগুলোতে এসব পেঁয়াজের পাতা জমির আলে কৃষক এমনিতে ফেলে রাখত।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *