290156

নববর্ষের দিনটি মাঠেই কাটবে ক্রিকেটারদের

বাংলা নববর্ষের কথা মাথায় রেখেই ১৩ এপ্রিল সুপার লিগ শুরু হয়নি। সিসিডিএম ও ক্লাব কর্তাদের কথা শুনে মনে হয়েছিল ক্রিকেটাররা যাতে বাঙালির প্রাণের উৎসবটি পরিবার-পরিজন, বন্ধু-বান্ধব ও সুহৃদ-শুভানুধ্যায়ীদের সাথে উদযাপন করতে পারেন, সে কথা ভেবেই আসলে পহেলা বৈশাখের আগেরদিন সুপার লিগ শুরু না করে পরদিন মানে ১৫ এপ্রিল সোমার সুপার সিক্সের লড়াই শুরুর সিদ্ধান্ত।

কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে, যাদের কথা ভেবে বাংলা ১৪২৬ সালের আগেরদিন মানে আজ খেলা বন্ধ রাখা হলো, সেই ক্রিকেটাররা কি নব বর্ষের প্রথম দিনটি উৎসবে-আনন্দে কাটাতে পারবেন? উত্তর বেরিয়ে এসেছে, নাহ! পারবেন না। ক্রিকেটারই শুধু নন, কোচ, ম্যানেজার তথা সুপার লিগে ওঠা ছয় দলের পুরো টিম এবং টিম ম্যানেজমেন্টের কারোরই ছুটি নেই। যেহেতু পরদিন সুপার লিগের প্রথম খেলা, তাই কাল নববর্ষের দিনেও সব দলেরই প্র্যাকটিস আছে।

সুপার লিগে ওঠা লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ, প্রাইম ব্যাংক, আবাহনী, প্রাইম দোলেশ্বর, শেখ জামাল ধানমন্ডি আর মোহামেডান ছয় দলেরই কাল প্র্যাকটিস আছে। বেশিরভাগ দলের ভাল মানের ন্যাচারাল টার্ফে প্র্যাকটিস সুবিধা নেই। আবাহনী আর শেখ জামাল ধানমন্ডি ছাড়া আর কোন দলের মাঠও নেই। মোহামেডান ক্লাবের সামনে নেট প্র্যাকটিসের জায়গা আছে। তারপরও সব দল বিসিবি একাডেমির দুই দিকের নেটে ভাগাভাগি করে অনুশীলন করে।

খোঁজ নিয়ে এবং ছয় দলের কোচ, ক্রিকেটার ও ম্যানেজারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, কাল সোমবার প্রায় সারা দিনই কোন না কোন দলের অনুশীলন আছে। সোমবার সূর্য ওঠার সঙ্গে সঙ্গে গোটা দেশ যখন নব বর্ষবরণের উৎসব-অনন্দে মুখরিত হবে- তখনই শেরে বাংলায় বিসিবি একাডেমির মাঠে অনুশীলনে নেমে পড়বেন ক্রিকেটাররা। সকাল আটটায় প্রাইম ব্যাংকের অনুশীলন। প্রাইম ব্যাংক কোচ সারোয়ার ইমরান জাগো নিউজকে এমনটাই জানালেন আজ রাতে। পরশু সকাল ৯টায় শেরে বাংলায় সুপার লিগের প্রথম দিনই যে দুই দল মুখোমুখি হবে, সেই আবাহনী আর প্রাইম দোলেশ্বরের প্র্যাকটিস কাল রোববার সকাল দশটায়।

আবাহনী অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত আর আর প্রাইম দোলেশ্বর কোচ মিজানুর রহমান বাবুল জানালেন, তাদের নিজ নিজ দলের অনুশীলনের সময় নববর্ষের দিন সকাল ১০টা। অন্যদিকে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের অনুশীলন শুরু দুপুর ২টায়। লিগ টেবিলে সবার ওপরে থাকা লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ কোচ আফতাব আহমেদ নিশ্চিত করেছেন, তার দল ভর দুপুরে অনুশীলন করবে। এদিকে সোমবার যে দলের সাথে বিকেএসপিতে খেলা, সেই মোহামেডানের প্র্যাকটিস রোববার সকাল ১১ টায়। মোহামেডান ম্যানেজার ওয়াসিম খান এ তথ্য দিয়ে বলেন, আমাদের নববর্ষের দিন সকাল ১১টায় অনুশীলন।

শুধুমাত্র শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব প্র্যাকটিস করবে বিকেলের সেশনে। কোচ সোহেল ইসলাম জানিয়েছেন, তার দলের প্র্যাকটিস বিকেল তিনটায়। ওপরের অনুশীলন সূচিই বলে দিচ্ছে, শেখ জামাল ধানমন্ডির ক্রিকেটাররা ছাড়া বাকি পাঁচ দল লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জ, প্রাইম ব্যাংক, আবাহনী, প্রাইম দোলেশ্বর আর মোহামেডানের ক্রিকেটারদের কারোরই বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে যোগ দেবার সুযোগ হবে না। যাদের পরিবার ঢাকায় থাকেন, সেই সব ক্রিকেটারা সকাল থেকে দুপুর অবধি প্র্যাকটিস করে যেয়ে সর্বোচ্চ দুপুরের খাবারটা পরিবারের সাথে খেতে পারবেন। এর বেশি কিছু নয়।

একাধিক ক্লাব কর্তা ও ক্রিকেটারদের সাথে কথা বলে জানা গেল, তারা মনে করেন, এর চেয়ে ১৩ এপ্রিল খেলা দিলেই ভাল হতো। তাহলে নববর্ষের দিন সেভাবে ঘোরাফেরা করা না গেলেও সারাদিন পরিবারের সাথে কাটানোর ফুরসত মিলতো; কিন্তু এখন খেলা না থাকলেও নববর্ষের দিনেও অনুশীলনেই কাটবে তাদের।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *