193039

বিএনপি থেকে আ’লীগে গায়ক এস ডি রুবেল!

আওয়ামী লীগের উপ-কমিটি ঘোষণা নিয়ে ইতোমধ্যে দলে নানা নাটকীয়তা শুরু হয়েছে। কেউ বলছেন, কমিটি ঘোষণা করা হয়ে গেছে। কেউ বলছেন, এখনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হয়নি। এরই মধ্যে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ স্বাক্ষরিত অনুমোদিত উপ-কমিটির সদস্যদের তালিকা ঘুরছে নেতাদের হাতে হাতে। সেই তালিকা এসেছে সংবাদকর্মীদের হাতেও।আওয়ামী লীগের সেই অনুমোদিত উপ-কমিটিতে সংস্কৃতি বিষয়ক উপ-কমিটির তিন নম্বর সদস্য হিসেবে আছেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী এস ডি রুবেল।উপ-কমিটিতে এস ডি রুবেলের জায়গা পাওয়া নিয়ে দলের ভেতরে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে। এমনকি বিএনপি নেতারাও হাস্যরস করছেন বিষয়টি নিয়ে।

এস ডি রুবেল বিএনপির সাংস্কৃতিক সংগঠন জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) দীর্ঘ দিন কেন্দ্রীয় নেতা ছিলেন। এ ছাড়া ছাত্রজীবনে ঢাকা কলেজে ছাত্রদলের নেতা ও ক্যাডার হিসেবে পুরো ছাত্রজীবন পার করেছেন।এস ডি রুবেল যখন ছাত্রদল করতেন সে সময় ঢাকা কলেজে ছাত্রলীগের একাধিকজন উপ-কমিটিতে জায়গা পেয়েছেন। তাদের একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, রুবেলের হাতে ছাত্রলীগের অনেক ত্যাগী নেতাকর্মী নির্যাতিত হয়েছে।বুধবার রাতেই এস ডি রুবেলের আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক দায়িত্ব পাওয়ার বিষয়টি জানাজানি হয়।

যোগাযোগ করলে এস ডি রুবেল পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, তিনি সব সময়ই আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেছেন। তিনি কখনও জাসাস করেননি।তিনি বলেন, জাসাস থেকে তাকে অনেকবার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এমনকি বিএনপির হাইকমান্ডও তাকে প্রস্তাব দিয়েছিল বলে দাবি করেন রুবেল।এস ডি রুবেল বলেন, তিনি ছাত্রজীবনে চাঁদপুর সরকারি কলেজে ছাত্রলীগের ব্যানারে সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। ঢাকা কলেজে পড়ার সময় তিনি আর কোনো রাজনীতি করেননি বলেও দাবি তার।রুবেল বলেন, বঙ্গবন্ধুর ওপর তার গান রয়েছে। তিনি সম্প্রীতির একটি গান লিখাতে স্বাধীনতাবিরোধী একজন সংসদ সদস্য তার সমালোচনা করেছিলেন বলে দাবি করেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের কমিটিতে তার যাওয়ার কথা। চূড়ান্ত খবরের জন্য অপেক্ষা করছেন।জানতে চাইলে জাসাসের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক নায়ক হেলাল খান পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, এস ডি রুবেল এক সময় নিয়মিত জাসাসের কর্মসূচিতে যোগ দিতেন। তিনি আগের কমিটির সদস্য ছিলেন। জাসাসের অসংখ্য অনুষ্ঠানে তিনি গান গেয়েছেন।হেলাল খান দাবি করেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় এস ডি রুবেল জাসাস করার সুবাদে একটি ফ্ল্যাট পেয়েছিলেন এবং অন্যান্য রাজনৈতিক সুবিধা ভোগ করেছেন। বার বার তাদের কাছে জাসাসের অনুষ্ঠানের বিষয়ে খোঁজখবর নিতেন।

এই জাসাস নেতা বলেন, এখন হয়তো সময় খারাপ বলেই সরকারি দলে চলে গেছে। অসুবিধা নেই, আবার আমাদের সময় ভালো হলে চলেও আসবে।জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবাহান গোলাপ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, এস ডি রুবেলের বিষয়টি তিনি জানেন না। এ বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া হবে।গোলাপ জানান, এখন যে তালিকাটি প্রকাশ পেয়েছে সেটি একটি খসড়া তালিকা। এই তালিকা ধরে নেতাদের চিঠি পাঠানো হচ্ছে। যারা চিঠি পাচ্ছেন তারা স্বশরীরে এসে স্বাক্ষাৎকার দেবেন। এরপর সব কিছু চূড়ান্ত হবে।
সূত্র: পরির্বতন

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *