192814

ডিভোর্সের সময় কোন নায়ক-নায়িকার কত খরচ হয়েছিল

বিনোদন ডেস্ক:

হৃতিক রোশন— সুজান খানের সঙ্গে ১৪ বছরের বিবাহিত জীবনে ইতি পড়ে ২০১৪ সালে। শোনা যায়, ৩৮০ কোটি টাকা খোরপোশ দিতে হয়েছিল অভিনেতাকে।

কারিশ্মা কাপূর— প্রায় ১৩ বছরের বিবাহিত জীবনের পর, স্বামী সঞ্জয় কাপূরের বাবার বাড়ি নিজের নামে করে নেন অভিনেত্রী। এর সঙ্গে নিজেদের সন্তানদের নামে যে ১৪ কোটি টাকার বন্ড কিনেছিলেন সঞ্জয়, তার মাসিক ইন্টারেস্টের ১০ লাখ টাকাও পান কারিশ্মা।

আদিত্য চোপড়া— ২০০৯ সালে স্ত্রী, পায়েল চোপড়ার সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদে, প্রচুর অঙ্কের টাকার সঙ্গে একটি বিশাল বাড়িও দিতে হয় আদিত্যকে।

সাইফ আলি খান ও অমৃতা সিংহ— ২০০৫ সালে বিবাহবিচ্ছেদ হয় দুজনের। তখন সাইফ স্টার হননি। এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছিলেন, সেই অবস্থায়ও পাঁচ কোটি টাকা খোরপোষ দিতে হয়েছিল তাঁকে।

ফারহান আখতার— ১৫ বছরের সম্পর্কে ইতি টানেন এঁরা। অধুনা তাঁর দুই মেয়েকে নিয়ে নিজেদের বাড়িতেই থাকেন। তবে ফারহান তাঁকে কত টাকা দিয়েছিলেন তা প্রকাশ্যে আসেনি।

প্রভু দেবা— ১৫ বছরের বিবাহিত জীবনের পরে, বিশাল সম্পত্তির বিনিময়ে বিচ্ছেদ হয় প্রথম স্ত্রী রামলতার সঙ্গে। ৩টি বাড়ি, ২টি গাড়ি ও ১০ লাখ টাকা ছিল খোরপোষের অঙ্কে।

আমির খান— ২০০২ সালে, ১৬ বছরের বিবাহিত জীবনের সমাপন ঘটে রিনা দত্তর সঙ্গে। শোনা যায়, ৫০ কোটি টাকা দাবি করেছিলেন রিনা।

সঞ্জয় দত্ত— লিয়েন্ডার পেজের সঙ্গে সম্পর্ক থাকাকালীনই সঞ্জয় দত্ত ও রিয়া পিল্লেইয়ের বিচ্ছেদ ঘটে। ৮ কোটি টাকা, একটি গাড়ির পাশাপাশি, মামলার সমস্ত খরচও বহন করেন সঞ্জয়।

আরবাজ খান ও মালাইকা অরোরা— ১৮ বছরের দীর্ঘ বিবাহিত জীবনের সমাপন ঘটে ২০১৬ সালে। শোনা যায়, ১০ কোটি টাকা খোরপোশ চেয়েছিলেন মালাইকা। কিন্তু, এ তথ্যের কোনও ভিত্তি পাওয়া যায়নি।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *