192470

১০ ওভার বল করে মোস্তাফিজ ৭ ওভারই ডট দিয়েছেন

ডেস্ক রিপোর্ট: সাকিব আল হাসানের মতো দুর্দান্ত শুরু নয়, রুবেল হোসেনের মতো হ্যাটট্রিকের সুযোগও আসেনি। তবু আজ প্রত্যাবর্তনটা রঙিন হয়েছে ছয় মাস পর ওয়ানডে খেলতে নামা মোস্তাফিজুর রহমানের। শিরোনামে মোস্তাফিজের নামের পাশে ডট ডট ডট প্রথাগত কারণে নয়। আক্ষরিক অর্থেই মোস্তাফিজ আজ ছিলেন ডট বলের রাজা। ১০ ওভার বল করে ৪২টি ডট। ৭ ওভারই ডট দিয়েছেন মোস্তাফিজ!

জিম্বাবুয়ের ইনিংসের ১১তম ওভারে সাকিবকে সরিয়ে মোস্তাফিজের হাতে বল তুলে দিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। দ্বিতীয় বলেই কভার ড্রাইভে বাউন্ডারি, মোস্তাফিজকে স্বাগত জানালেন ব্রেন্ডন টেলর। বাঁহাতি পেসার হতাশ হননি। খানিক পর ঠিকই রাশটা নিজের হাতে নিয়েছেন। একের পর এক ডট বল দিয়ে চাপে রেখে ১৭তম ওভারে টেলরকেই মুশফিকুর রহিমের ক্যাচ বানিয়ে ফিরিয়েছেন। প্রথম ১৭ বলের মধ্যে ১৬টিই ডট মোস্তাফিজের!

জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে যদিও বাঁহাতি পেসারের মুখে হাসি নেই। বরং ‘এ আর এমন কি’ ধরনের অভিব্যক্তি! ৫ ওভারের প্রথম স্পেলে ১ মেডেনে ১৩ রান দিয়ে তাঁর প্রাপ্তি টেলরের উইকেটটি।

দ্বিতীয় স্পেলে ২ ওভার বোলিং করে ৭ রান দিয়ে থেকেছেন উইকেটশূন্য। শেষ স্পেলে মোস্তাফিজ সবচেয়ে বেশি উজ্জ্বল—৩ ওভারে ৯ রান দিয়ে ১ উইকেট। বিষাক্ত কাটারে মুজারাবানির অফ স্টাম্প উপড়ে দিয়ে খুঁড়িয়ে চলা জিম্বাবুয়ের লেজটা মুড়ে দিয়েছেন। ১০ ওভারে ২৯ রান খরচ করে ২ উইকেট।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আজ অবশ্য বাংলাদেশের সব বোলারই কম-বেশি সফল। প্রতিপক্ষ তুলনামূলক দুর্বল হলেও মোস্তাফিজের কাছে ম্যাচটার আলাদা তাত্পর্য। গত অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকায় চোটে পড়ায় সফর অর্ধসমাপ্ত রেখেই চলে আসতে হয়েছিল দেশে। চোট কাটিয়ে বিপিএলে ছয়টি ম্যাচ খেললেও চেনা ছন্দে দেখা যায়নি।

যখন জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানদের পরীক্ষা নিচ্ছিলেন মোস্তাফিজ, স্টেডিয়ামের আয়রন গেটে দাঁড়িয়ে দেখছিলেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। দুপুরে বিসিবি একাডেমি মাঠে নিজেদের অনুশীলন শেষে শ্রীলঙ্কান কোচ দেখে গেলেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে কেমন করছেন তাঁর সাবেক ছাত্ররা। মোস্তাফিজ কিংবা বাংলাদেশের বোলারদের বোলিং বিশ্লেষণ দেখে তাঁর যদিও খুশি হওয়ার কথা নয়। বরং চিন্তার ভাঁজ বাড়াবে কপালে।

গত চ্যাম্পিয়নস ট্রফির পর ওয়ানডেতে ফিরে কাটার, স্লোয়ার, ধারাবাহিক নিখুঁত লাইন-লেংথে বোলিং করা মোস্তাফিজ বুঝিয়েছেন বোলিংটা তিনি উপভোগ করছেন আগের মতোই। এভাবেই উপভোগ করতে থাকুন ‘ফিজ’। ছন্দে থাকা মোস্তাফিজের বোলিং যে ভীষণ উপভোগ্য। মোস্তাফিজ উইকেট পাচ্ছেন, এই দৃশ্যের চেয়ে তাঁর বলে বিভ্রান্ত হয়ে ব্যাটসম্যান বোকা বনে যাচ্ছেন, এই দৃশ্য কম আনন্দের নয়।

তার চেয়ে বেশি আনন্দের হয়তো মোস্তাফিজ অনেক দিন পর নির্ভার হয়ে খেলতে দেখা। সেই সারল্যমাখা হাসি নিয়ে প্রতিটা মুহূর্ত উপভোগ করা। মোস্তাফিজ, আপনি এমনই নির্ভার থাকুন! প্রথম আলো

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *