191497

এক-এগারো’র ১১ বছর আজ

ডেস্ক রিপোর্ট: ২০০৭ সালের এই দিনে জরুরি অবস্থা ঘোষণার মধ্য দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিল সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার।

২০০৬ সালের শেষ দিকে বিএনপি’র ক্ষমতার মেয়াদ শেষে, তত্ত্বাবধায়ক সরকাররে প্রধান উপদেষ্টার মনোনয়নকে ঘিরে বিতর্ক দেখা দেয়। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বিএনপি কে এম হাসানকে প্রধান উপদেষ্টা করতে চায় আর তাতেই ছিল আওয়ামী লীগের আপত্তি। এই বিতর্ক এক পর্যায়ে সহিংসতায় রুপ নেয়।

শেষ পর্যন্ত কে এম হাসান প্রধান উপদেষ্টার পদ নিতে অস্বীকৃতি জানালে বিএনপি’র মনোনীত রাষ্ট্রপতি ইয়াজউদ্দিন আহমদ নিজেই ওই পদ গ্রহণ করেন। আওয়ামী লীগও তাকে স্বাগত জানায়। কিন্তু, তিনি সিদ্ধান্ত গ্রহণে বিএনপি’র প্রতি নির্ভরতা বাড়িয়ে দিলে এক পর্যায়ে চারজন উপদেষ্টা পদত্যাগ করেন। তার তত্ত্বাবধায়ক সরকারও একতরফাভাবে নির্বাচন আয়োজনে ব্যস্ত থাকে। আওয়ামী লীগ তার পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন তীব্র করে।

এমন পরিস্থিতিতে ২০০৭ সালের ১১ই জানুয়ারি প্রধান উপদেষ্টার পদ থেকে সরে দাঁড়ান রাষ্ট্রপতি। জারি করেন জরুরি অবস্থা। বাতিল করা হয় দশ দিন পর হতে যাওয়া ২২ জানুয়ারির জাতীয় নির্বাচন। এরপর, সেনা নিয়ন্ত্রণে গঠিত হয় নতুন তত্ত্বাবধায়ক সরকার। যার প্রধান উপদেষ্টার দায়িত্ব নেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ফখরুদ্দীন আহমদ।

শুরুতে এই সরকারকে বিভিন্ন মহল স্বাগত জানালেও ধীরে ধীরে তাদের কর্মকাণ্ডে জনমনে অসন্তোষ দেখা দেয়। রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধের পাশাপাশি শীর্ষ দুই নেত্রীকে বন্দি করা হয়। দুর্নীতির মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় বহু রাজনৈতিক নেতা ও ব্যবসায়ীকে। সাজাও দেয়া হয় অনেককে। রাজনৈতিক নেতৃত্ব শূন্য হয়ে ওঠে দেশ।

তবে, নানা সমালোচনার মধ্যেও একটি স্বচ্ছ ভোটার তালিকা তৈরি ও ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর একটি সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিদায় নেয় ওই তত্ত্বাবধায়ক সরকার। সূত্র: ডিবিসি নিউজ

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *