191256

মানুষ কিভাবে মৃত্যুর আগেই মৃত্যুর খবর টের পায়?

মৃত্যুর আগে মানুষের আচরণে অদ্ভুত পরিবর্তন আসে। এমন কিছু কাজ করতে থাকে যেন, মৃত্যু তার সামনে উপস্থিত। হাত বাড়ালেই দেখতে পাবে। এ সময় আশ পাশের মানুষদের নানা রকম কথা বলে সেই ব্যক্তি। দেনা পাওনা থাকলে বলে দেয়। সম্পদের ওয়ারিস ভাগ করে যায় কেউ কেউ। প্রশ্ন হলো মৃত্যুর আগেই মানুষ কিভাবে জানতে পারে তার মৃত্যু নিকটবর্তী।

বিজ্ঞানে এরকম কিছু এখনো আবিস্কার না হলেও আমরা রাসুল মুহাম্মদ সা. থেকে জানতে পারি বিষয়টি।হাদিস শরিফে এসেছে, যখন মানুষের অন্তিমকাল উপস্থিত হয় এবং রূহ বের হবার সময় ঘনিয়ে আসে, তখন চারজন ফেরেশতা তার কাছে উপস্থিত হয়।

সর্বপ্রথম এক ফেরেশতা উপস্থিত হয়ে বলেন, ‘আসসালামু আলাইকুম’ হে অমুক! (যার যার নাম) আমি তোমার খাদ্য সংস্থানের কাজে নিযুক্ত ছিলাম। কিন্তু এখন পৃথিবীর পূর্ব থেক পশ্চিম প্রান্ত পর্যন্ত অন্বেষণ করেও তোমার জন্য এক দানা খাদ্য সংগ্রহ করতে পারলাম না। সুতরাং বুঝলাম তোমার মৃত্যু ঘনিয়ে এসেছে হয়ত এখনই তোমাকে মরণ সুধা পান করতে হবে। পৃথিবীতে তুমি আর বেশীক্ষণ থাকবে না।এরপর দ্বিতীয় ফেরেশতা এসে সালাম করে বলেন, হে আল্লাহর বান্দা! আমি তোমার পানীয় সরবরাহের জন্য নিযুক্ত ছিলাম, কিন্তু এখন তোমার জন্য পৃথিবীর সর্বত্র অন্বেষণ করেও এক ফোঁটা পানি সংগ্রহ করতে পারলাম না। সুতরাং আমি বিদায় হলাম।

তারপর তৃতীয় ফেরেশতা এসে সালাম করে বলবেন হে আল্লাহর বান্দা! আমি তোমার পদযুগলের তত্ত্বাবধানে নিযুক্ত ছিলাম, কিন্তু পৃথিবীর সর্বত্র ঘুরেও তোমার জন্য একটিমাত্র পদক্ষেপের স্থান পেলাম না। সুতরাং আমি বিদায় নিচ্ছি।চতুর্থ ফেরেশতা এসে সালাম করে বলবেন হে আল্লাহর বান্দা! আমি তোমার শ্বাস-প্রশ্বাস চালু রাখার কাজে নিযুক্ত ছিলাম। কিন্তু আজ পৃথিবীর এমন কোনো জায়গা খুঁজে পেলাম না যেখানে গিয়ে তুমি মাত্র এক পলকের জন্য শ্বাস-প্রশ্বাস গ্রহণ করতে পার। সুতরাং আমি বিদায় নিচ্ছি।

তারপর কিরামান ও কাতেবিন ফেরশতাদ্বয় এসে সালাম করে বলবেন, হে আল্লাহর বান্দা! আমরা তোমার পাপ-পূণ্য লেখার কাজে নিযুক্ত ছিলাম। কিন্তু এখন দুনিয়ার সব জায়গা সন্ধান করেও আর কোনো পাপ-পূণ্য খুঁজে পেলাম না। সুতরাং আমরা বিদায় নিচ্ছি। এই বলে তারা এক টুকরা কালো লিপি বের করে দিয়ে বলবেন হে আল্লাহর বান্দা! এর দিকে লক্ষ্য কর।

সে দিকে লক্ষ্য করামাত্র তার সর্বাঙ্গে ঘর্মস্রোত প্রবাহিত হবে এবং কেউ যেন ঐ লিপি পড়তে না পারে এজন্য সে ডানে বামে বার বার দেখতে থাকবে।তারপর কেরাম কাতেবিন প্রস্থান করবেন। তখনই মালাকুল মউত তার ডান পাশে রহমতের ফেরেশতা এবং বাম পাশে আযাবের ফেরেশতা নিয়ে আগমন করবেন এবং তার জান কবজ করবেন।পবিত্র কুরআনে বিষয়টি আল্লাহ পাক বর্ণনা করেছেন। আল্লাহ বলেন, ‘এবং তোমাদের ওপর প্রেরণ করেন হিফাজতকারীদের। যখন তোমাদের কারও মৃত্যু আসে তখন আমার প্রেরিত ফেরেশতারা তার আত্মা হস্তগত করে নেয়। সূরা আন’আম, আয়াত ৬১

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *