185765

বাসের ‘কন্ডাক্টর’ থেকে ভারতের সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিকের অভিনেতা

রজনীকান্ত। কে এই রজনীকান্ত, আর কেনইবা তাকে নিয়ে এতো মাতামাতি? বলিউডের নন, ভারতের উত্তরের নায়ক হিসেবে উত্থান রজনীকান্তের।

বর্তমানে বয়স ৬৬। যে কোনও চরিত্রে অভিনয় করতে জুরি নেই তার। শাহরুখ-সালমানের মত বলিউড সুপার স্টাররা তাকে অনুসরণ করতে চান। শাহরুখ অভিনীত চেন্নাই এক্সপ্রেস ছবির লুঙ্গি ড্যান্স গানটি রজনীকান্তকেই উৎসর্গ করে গাওয়া। এই কিংবদন্তী নায়ক সিনেমা জীবনে অনেক পুরস্কার জিতেছেন-যেগুলোর অধিকাংশই তামিল। কিন্তু এই কিংবদন্তীর জীবনটা এতটা মসৃণ ছিল না।

আজকের এই রজনীকান্ত জীবনের এক সময় কাজ করেছেন বেঙ্গালুরে বাসের কনডাক্টর হিসেবে। সেখান থেকে চলে যান মাদ্রাজ ফিল্ম ইনস্টিটিউটে। কিন্তু তার এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি তার বাবা। তার এই দুর্দিনে এগিয়ে এলেন তার বন্ধু রাজ বাহাদুর। রজনীর সিনেমা জীবনটা শুরু হয় মঞ্চ নাটক দিয়ে। তারপর ডাক পান তামিল পরিচালক কে বালাচরনদারের ছবিতে। শুরু হল পথ চলা। এরপর থেকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

রজনীকান্ত এতই বিখ্যাত যে, তার সাথে অভিনয় করার লোভ বলিউড সুপার স্টার শাহরুখ খান পর্যন্ত সামলাতে পারেন না। শুধু তাই নয়, ভারতের সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিকের অভিনেতা রজনীকান্ত। শিবাজি ছবির জন্য পারিশ্রমিক নিয়েছেন ২৬ কোটি রুপি-যা এশিয়ার মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। এশিয়ার প্রথম সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকের অভিনেতা জ্যাকি চ্যান।

এত বিখ্যাত হওয়া সত্ত্বেও কখনও নিজের ছবির প্রচারণায় তিনি অবতরণ করেন না। তার ভক্তরা মনে করেন, তাদের বস পর্দায় যে কোন অভিনয়ের জন্য পারদর্শী। রজনীকান্তই প্রথম ভারতীয় অভিনেতা যিনি বিভিন্ন প্রযুক্তির ক্যামেরায় কাজ করেছেন। রজনীকান্ত প্রতিটি ছবির শ্যুটিং শেষে চেন্নাই থেকে হিমালয়ে হাওয়া খেতে যান।

একবার চেন্নাইতে তার জন্ম দিনের অনুষ্ঠান থেকে ফেরার পথে তার এক ভক্ত সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যায়। এরপর থেকে চেন্নাইতে নিজের জন্ম দিন আর কোনদিনই পালন করেননি। রজনীকান্ত অভিনীত সায়েন্স ফিকশন ধর্মী তামিল ছবি এনথিরান ২০১০ সালে বিশ্বে টপ ৫০ এর মধ্যে স্থান করে নিয়েছিল।

শুধু তাই নয়, তার এই ছবিটি একটি স্নাতকোত্তর কোর্সের কেস স্টাডিতে জায়গা পেয়েছিল। এই কিংবদন্তী অভিনেতা তামিল, তেলেগু, কান্নাদা, মালায়াম, হিন্দী এমনকি বাংলা ছবিতেও অভিনয় করেছেন। কিন্তু কোনটিতেই তিনি মাতৃভাষা ব্যবহার করেননি। মূলত তিনি ভারতের মহারাষ্ট্রের অধিবাসী।

রজনীর জনপ্রিয়তা এতই তুঙ্গে যে, ২০১৪ সালের ৫ মে যখন প্রথম তিনি টুইটারে আসেন, প্রথম দিনেই তার ফলোয়ার সংখ্যা আড়াই লাখ ছাড়িয়ে যায়। উত্তরের ভক্তরা তাকে দেবতার সাথে তুলনা করেন।

গতকাল রজনীকান্তের ৬৭ তম জন্মদিন ছিল। ভক্ত ও অনুরাগীদের থেকে পেয়েছেন শুভেচ্ছা। বয়স বাড়লেও, সিনেমার পর্দায় তা বুঝতে দেননি। আগামী বছরই তাঁর ২.০ ছবিটি মুক্তি পাবে। সেখানেও তাঁকে দেখা যাবে এক অন্য অবতারে। রোবট ছবির সিকুয়ালে রজনীর পাশাপাশি দেখা যাবে অক্ষয় কুমারকেও।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *